লন্ডনে সৈয়দপুর মহিলা গ্রুপের ঈদ পুনর্মিলনী

লন্ডন প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের লন্ডনে বসবাসরত নারীদের ঈদ পুনর্মিলনীতে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয়েছে নারী শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যুগান্তকারী ভূমিকা পালনকারী প্রয়াত নারী পূর্ব প্রজন্মকে।

গত শনিবার, ৮ই জুন স্থানীয় সময় বেলা আড়াইটায় পূর্ব লন্ডনের একটি রেষ্টুরেন্টে শাহনাজ মওসুমী সৈয়দার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই ঈদ পুনর্মিলনীতে লন্ডনে বসবাসরত বিপুল সংখ্যক নারী অংশ নেন।

প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত সৈয়দপুর মহিলা গ্রুপের এই পুনর্মিলনীতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সৈয়দপুরের মহিলাদের অর্জন নিয়ে আলোচনা হয়। স্মরণ করা হয় সার্বিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী কৃতি পূর্ব প্রজন্মকে।

বলা হয়, বৃহত্তর সিলেট তথা সারা বাংলাদেশের মধ্যে শিক্ষাদীক্ষায় সমৃদ্ধ একটি অন্যতম গ্রাম হিসেবে স্বীকৃত সৈয়দপুর। এশিয়া মহাদেশের মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম এই গ্রামটিতে যুগে যুগে জন্ম নিয়েছেন অনেক কৃতিজন।

অতীতে যেমন এই গ্রামের আলেম ওলামা ও ইসলামী চিন্তাবিদরা এতদঞ্চলে ইসলামের সুমহান বাণী প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন, ঠিক তেমনি আজও গ্রামটির বর্তমান আলেম ওলামারা সর্বজনের কাছে শ্রদ্ধার পাত্র। পুনর্মিলনীতে শিক্ষার প্রতি সৈয়দপুরের মেয়েদের সাম্প্রতিক আগ্রহে সন্তোষ প্রকাশ করে নারী শিক্ষার প্রচার ও প্রসারে গ্রামের প্রয়াত মহিলা শিক্ষাবিদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয়।

রাজনীতি, শিক্ষা, সংস্কৃতি, সাংবাদিকতাসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে সৈয়দপুরের সন্তানদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, যুগে যুগে পূর্ব প্রজন্মের উত্তরাধিকার বহন করে তাদের গৌরবগাঁথা পরবর্তী প্রজন্মের কাছে পৌছে দিয়েছেন প্রতিটি প্রজন্ম। যার জন্য সব সময়ই এসব ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে সৈয়দপুর।

পুনর্মিলনীর শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন বুশরা বেগম ও আমিরা মারিয়ম সৈয়দা। নাশিদ পরিবেশন করেন জাহরা উদ্দিন, এলিজা ফাতিমা সৈয়দা, খাদিজা উদ্দিন ও মেহরিশ জান্নাত সৈয়দা। ঈদের কবিতা আবৃত্তি করেন সৈয়দা আরিয়ানা।

বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন সৈয়দা রেবেকা বেগম, সৈয়দা রুকসানা ইসলাম, শিরিন কামালী কোরেশী,মির্জা হেলেনা কোরেশী, মল্লিক গুলশানা আহমেদ, জলি বেগম ইসলাম, সৈয়দা বিলকিস মনসুর, সৈয়দা লুসি হক, সৈয়দা লাকি খানম, সৈয়দা কলি পাশা, সৈয়দা বাবলী বেগম, ফাতিমা নার্গিস, ফাহিমা মিয়া, সৈয়দা তৈয়ব দিবা, সৈয়দা শাপলা বেগম, সৈয়দা সালমা বেগম, জেসমিনা বেগম, সৈয়দা হোসনা বেগম, সৈয়দা লুনা আহমদ, সৈয়দা লিজা আহমেদ, সৈয়দা সুলতানা আহমদ, জয়নাব সৈয়দা, সৈয়দা নাসিমা বেগম, অনিকা মেহনাজ সৈয়দা, সৈয়দা লিপা আশরাফি, সৈয়দা লিজা আহমেদ, সুমি বেগম, লাকী শামিমা, ওয়াহিদা কোরেশী, শারমিন বেগম, রাজিয়া হোসেইন সুমা, সীমা কোরেশী শামা কোরেশী, সৈয়দা বিউটি বেগম, সৈয়দা শামীমা সুলতানা, মল্লিক শান্তা, মল্লিক তান্নি, নিলিমা, সিদ্দিকা খাতুন, আন্জুমান খান, ফাবিহা, নাজিয়া রকিব, রুকসানা বেগম, বুশরা বেগম, সৈয়দা আইয়ান সাবির, সৈয়দা সারা আহমেদ ও খাদিজা উদ্দিন প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে ভিন্ন ভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতার জন্য কয়েকজন নারীকে পুরস্কার দেয়া হয়। পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন, সৈয়দা রুকসানা ইসলাম, সৈয়দা সুলতানা আহমেদ, সৈয়দা লিজা আহমেদ, বুশরা বেগম, জাহরা উদ্দিন, এলিজা সৈয়দা ও সৈয়দা আরিয়ানা।

শেয়ার করুন