রাতে গৃহবধূকে হত্যা, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অভিযুক্ত নিহত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: চট্টগ্রামে গৃহবধূ বুবলী আক্তার (২৮) হত্যায় অভিযুক্ত যুবক পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। এ ঘটনাটি ঘটে গৃহবধূকে গুলি করে হত্যার পাঁচ ঘণ্টার মাথায়।

শনিবার (১১ মে) রাতে নগরীর বাকলিয়া থানার বলিরহাট এলাকায় গুলিতে নিহত হন বুবলী আক্তার। পরে রোববার (১২ মে) ভোরে কর্ণফুলী নদীর পাড় সংলগ্ন এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন অভিযুক্ত শাহআলম।

বুবলী আক্তারের (২৮) বাবার বাড়ি বাকলিয়ার বজ্রঘোনা এলাকায়। তার স্বামীর নাম আকরাম হোসেন। বুবলী বজ্রঘোনা এলাকায় বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ জানান, বজ্রঘোনা এলাকার যুবক শাহ আলমের সঙ্গে স্থানীয় হাসান নামের এক যুবকের বিরোধ ছিল। এই হাসান বুবলীদের আত্মীয় ও তার ভাই রুবেলের বন্ধু। শনিবার রাতে হাসানের সঙ্গে বিরোধের জেরে রুবেলকে মারার জন্য অস্ত্র হাতে খুঁজছিল শাহ আলম। পরে রুবেলকে না পেয়ে তার বোন বুবলীকে গুলি করে হত্যা করে।

তিনি আরও জানান, পুলিশ খোঁজ নিয়ে জানতে পারে খুনি শাহ আলম বজ্রঘোনার কল্পলোক আবাসিক এলাকায় অবস্থান করছে। এমন খবরে অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে শাহ আলম ও তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও গুলি ছোড়ে। এ সময় বাকলিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিনসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন। পরে ঘটনাস্থল থেকে শাহ আলমকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে বুবলী খুনের ঘটনায় জড়িত আরও দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলেন- শাহ আলমের ভাই নুরুল আলম ও সহযোগী মো. নবী।

শেয়ার করুন