ভূ-মধ্যসাগরে নিখোঁজ দক্ষিণ সুরমার জিল্লুরের বাড়িতে শোকের মাতম

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি :: সিলেটের দক্ষিণ সুরমার দাউদপুর ইউনিয়নের ইনাত আলীপুর গ্রামের লেচু মিয়ার ছেলে জিল্লুর রহমান। পড়ালেখা শেষ করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে কর্মজীবন শুরু করতে চাইছিলেন এ তরুণ। চেয়েছিলেন উন্নত একটি জীবন। আর এই উন্নত জীবনের আশায় দালালের মিষ্টি কথার প্রলোভনে তিনি পাড়ি জমান লিবিয়ায়। সেখান থেকে নৌকায় ইতালি পাড়ি দিতে চেয়েছিলেন। যথারিতী নৌকাও উঠেন। কিন্তু পথে ভূ-মধ্য সাগরে নৌকা ডুবে যায়। এরপর থেকে তার কোন সন্ধান পাচ্ছেন না পরিবারের সদস্যরা।

নৌকাডুবিতে জিল্লুর বেঁচে আছেন নাকি মারা গেছেন তারও খবর পাচ্ছেন না তারা। এ ঘটনার পর থেকেই তার পরিবারের কান্না থামছে না। ছেলের নাম ধরে বারবার প্রলাপ করছেন তারা বাবা-মা। তাদের শান্তনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছেন স্বজনরাও।

জিল্লুর দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য হিরা মিয়া ও ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ওলিউর রহমানের ভাতিজা। তিনি জানান, ‘গত ১১ মে শনিবার দালালের মাধ্যমে লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিসিয়ার উপকূলবর্তী ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবাহী নৌকা ডুবিতে জিল্লুর নিখোঁজ হয়। বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি প্রকাশিত নিহতদের নামের তালিকায় জিল্লুরের নাম প্রকাশিত হলেও এখন পর্যন্ত তার লাশের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, বিগত ২০১৮ সালের ২৩ মে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আনোয়ার মিয়ার মাধ্যমে জিল্লুর রহমান লিবিয়ায় যায়। সে লিবিয়ায় ৬ মাস কাজ করা অবস্থায় ১১ মাসে সময় লিবিয়ায় অবস্থানরত জনৈক মনছুর নামক বাংলাদেশী এক দালালের মাধ্যমে গত ৮ মে অবৈধ পথে ইতালীর উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। পথিমধ্যে ভূমধ্যসাগরে তাকে বহনকারী নৌকাটি ডুবে যায়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ রয়েছে। নৌকা ডুবির পর জিল্লুরের পরিবারে নেমে আসে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। তার পরিবারের কেউ জানতে পারেনি জিল্লুর কোথায় আছে? কি-ভাবে আছে? এ সংবাদে এলাকায় নেমে এসে শোকের ছায়া।

ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবিতে ৮০ জনের মধ্যে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় অনেকটাই নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি। তাদের মধ্যে দক্ষিণ সুরমার জিল্লুর রহমানের নাম প্রকাশ করা হয়। জিল্লুর ওই নৌকার যাত্রী ছিল।

জিল্লুর রহমান সিলেট সরকারি কলেজ থেকে ডিগ্রি পাস করে স্বপ্ন বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে কর্মজীবন শুরুর লক্ষ্যে প্রবাসে যাত্রা করেছিল। দু’ভাই, এক বোনের মধ্যে জিল্লূর ছিল মেঝো। পরিবারের হাল ধরতে ইটালীতে কর্মজীবন শুরু করাই ছিল জিল্লুর এর স্বপ্ন। কিন্তু সে স্বপ্ন স্বপ্নই রয়েগেল। বর্তমানে জিল্লুর রহমানের পিতা-মাতা সিলেট নগরীর উপশহরস্থ ডি-ব্লকের ১৪নং বাসায় বসবাস করছেন। ছেলে নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে বাসা ও বাড়ীতে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে শোকের মাতম চলছে। থামছে না কান্নাররোল।

শেয়ার করুন