বিশ্বনাথে ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে বখাটের কারাদণ্ড

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় প্রতিবেশী স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে বখাটে যুবককে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার বিকেলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা-তুজ-জোহরা’র ভ্রাম্যমাণ আদালত নয় মাসের কারাদণ্ড দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত মনির মিয়া (৩৩) উপজেলার কর্মকলাপতি (মাধবপুর) গ্রামের মৃত আব্দুস ছাত্তারের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুদ্দোহা। তিনি জানান, কারাদন্ডপ্রাপ্ত মনির মিয়া দীর্ঘদিন যাবৎ তার প্রতিবেশী কাতার প্রবাসী নিজাম উদ্দিনের মেয়ে, স্থানীয় ইসহাক একাডেমীর ১০ম শ্রেণীতে পড়–য়া ছাত্রীকে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত শনিবার বিকেলে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পথে ওই স্কুল ছাত্রীর সাথে ইভটিজিং করে মনির। বিষয়টি স্কুল ছাত্রীর পরিবার পাড়ার মুরব্বিদের অবহিত করলে রাতেই বৈঠকে বসেন গ্রামের মুরব্বিরা। কিন্ত মুরব্বিদের ডাকে সাড়া না দিয়ে ভিকটিমের (স্কুল ছাত্রী) বসত ঘরে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে মনির।

একপর্যায়ে ভিকটিম এবিষয়ে বিশ্বনাথ থানায় অভিযোগ করলে রোববার সকালে নিজ বাড়ি থেকে অভিযুক্ত মনির মিয়াকে আটক করে পুলিশ। এরপর বিকেল আড়াই টায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা-তুজ-জোহরা’র নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিকটিম, অভিযুক্ত যুবক ও প্রত্যেক্ষদর্শীদের বক্তব্য শুনে মনির মিয়াকে (অভিযুক্ত) ৯মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- অংলকারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম রুহেল, খাজাঞ্চী ইউপি চেয়ারম্যান তালুকদার গিয়াস উদ্দিন, বিশ্বনাথ থানার এসআই শফিকুল ইসলাম, দেবাশীষ শর্মা, এএসআই জামাল খান, এলাকার মুরব্বি কবির আহমদ কুব্বার, আব্দুল মছব্বির, ইউপি সদস্য সজ্জাদ মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য রাহিদুজ্জামান রিদু, ইছহাক একাডেমীর প্রতিষ্টাতা মিজানুর রহমান মোজাহিদ, প্রধান শিক্ষক ইলিয়াস আলী প্রমুখ।

শেয়ার করুন