বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য সম্পর্ক বৃদ্ধির আশ্বাস বৃটিশ হাই কমিশনারের

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: বাংলাদেশ ও বৃটেনের মধ্যে চমৎকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে উল্লেখ করে বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির হাই কমিশনার মিঃ রবার্ট চ্যাটারটন ডিক্সন বলেছেন, ‘ব্রিটিশ সরকার বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে যথেষ্ট সহযোগিতা প্রদান করে থাকে। তাছাড়া বাংলাদেশীরাও বৃটেনের অর্থনীতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন।’

মঙ্গলবার বিকেলে হোটেল রোজভিউ’য়ে দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়ে তিনি এ কথা বলেন। এসময় তিনি তিনি দুই দেশের মধ্যে বিরাজমান বাণিজ্য সম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির পাশাপাশি রপ্তানী ও বাংলাদেশীদের জন্য ভিসা প্রাপ্তি সহজীকরণের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন।

মতবিনিময়ে সিলেট চেম্বারের সভাপতি ও এফবিসিসিআই এর পরিচালক খন্দকার সিপার আহমদ বলেন, ‘সিলেটের একটি বিশাল জনগোষ্ঠী বৃটেনে অবস্থান করছেন। যারা বৃটেনের সাথে বাংলাদেশের একটি সেতুবন্ধন তৈরী করেছেন। তিনি বাংলাদেশ থেকে বৃটেনে দক্ষ কর্মী ও শেফ নিয়োগ, স্টুডেন্ট ভিসা সহজীকরণ এবং সাইট্রাস জাতীয় ফলমূল রপ্তানীতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আহবান জানান।’

এছাড়া তিনি ভিএফএস অফিসে আবেদনকারীদের সুবিধার্থে পজ মেশিনের মাধ্যমে ফি পরিশোধের ব্যবস্থা করা ও পাসপোর্ট রিটার্ন গ্রহণের জন্য এসএমএস প্রেরণের ক্ষেত্রে তারিখ ও সময় উল্লেখ করার অনুরোধ জানান। তিনি সিলেটের পর্যটন খাতে বিশেষ করে পিপিপি’র আওতায় ‘সিলেট ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ট্যুরিজম কমপ্লেক্স’ এ বিনিয়োগের জন্য বৃটেনের বিনিয়োগকারীদের আহবান জানান। এছাড়াও তিনি সিলেটের আইটি, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতে সরাসরি বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের আহবান জানান।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন বৃটিশ হাই কমিশনের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড এর প্রধান মিঃ ডেরেক গ্রিফিথ্স, ট্রেড এন্ড ইনভেস্টমেন্ট অফিসার দেলোয়ার হোসেন, সিলেট চেম্বারের সহ সভাপতি মোঃ এমদাদ হোসেন, পরিচালক মোঃ হিজকিল গুলজার, পিন্টু চক্রবর্তী, মুশফিক জায়গীরদার, এহতেশামুল হক চৌধুরী, আব্দুর রহমান, চন্দন সাহা, মোঃ আব্দুর রহমান (জামিল), মোঃ আতিক হোসেন প্রমুখ।

শেয়ার করুন