জগন্নাথপুরে পাশবিকতার অভিযোগে স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় এক ছাত্রীকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে এক স্ক্লু শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শিক্ষক হলেন উপজেলার সৈয়দপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বাপ্পা সেন। শুক্রবার তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় দুই জনের নামল্লোখপূর্বক ও অজ্ঞাতনামা একজনের নামে মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ, এলাকাবাসী ও মামলার বিবরণ সূত্র জানায়, কলকলিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা স্কুল ছাত্রীর সাথে সৈয়দপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক বাপ্পা সেন এর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। যার জের ধরে মেয়েটিকে বেড়ানোর কথা বলে গত ৪ মার্চ বিদ্যালয় থেকে ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা আব্দুস সামাদ এর বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে সামাদ ও বাপ্পা দুই বন্ধু মিলে তাকে পাশবিক নির্যাতন করে। বর্তমানে মেয়েটি দুই মাসের অন্তঃস্বত্বা।
জগন্নাথপুর থানায় মেয়েটির বাবা জানায়, আমার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে প্রলোভন দেখিয়ে পাশবিক নির্যাতন করে যারা সর্বনাশ করেছে আমরা তার বিচার চাই।
অপরদিকে, বাপ্পা সেনের ভাই রিংকু সেন জানান, আমার ভাই ষড়ষন্ত্রের শিকার। তাকে ফাঁসানো হয়েছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নব গোপাল দাস জানান, মেয়েটির অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় মামলা হয়েছে। আজ শনিবার আসামিকে সুনামগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হবে। মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।
জগন্নাথপুর থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন জানান, এঘটনায় জড়িত অন্যদেরও গ্রেফতার করা হবে।

শেয়ার করুন