চার ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেবে সিলেট মিরর

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে প্রকাশিত দৈনিক সিলেট মিরর স্ব স্ব ক্ষেত্রে কীর্তিমান বাঙালির সৃষ্টিশীল কাজের স্বীকৃতি দিতে সিলেট মিরর পুরস্কার প্রবর্তন করেছে। প্রতি বছর চারটি ক্যাটাগরিতে চার জন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার প্রদান করা হবে।

পুরস্কারের ক্যাটাগরিগুলো হচ্ছে, ১. সাহিত্য ২. সংস্কৃতি/ক্রীড়া, ৩.শিক্ষা/সমাজসেবা এবং ৪. সাংবাদিকতা। পুরস্কারের অর্থমূল্য পঞ্চাশ হাজার টাকা। এছাড়া প্রত্যেককে স্বীকৃতি-স্মারক, ক্রেস্ট, বরণ-উত্তরীয় দেওয়া হবে। প্রতি বছর জুন মাসে পুরস্কার প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করা হবে এবং জুলাই মাসে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। চলতি বছর থেকেই এই পুরস্কার প্রদান করা হবে।

সিলেট মিরর-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, পুরস্কারের জন্য দেশে বা দেশের বাইরে অবস্থানরত বাংলাদেশের নাগরিক বা কোনো [অনুমোদিত] সক্রিয় প্রতিষ্ঠান স্ব-স্ব ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ও কল্যাণকর কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ এই পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবেন। ব্যক্তির ক্ষেত্রে কোনো বয়সসীমা নির্ধারিত থাকবে না।

পুরস্কার প্রদানের জন্য পত্রিকা কর্তৃপক্ষ প্রতি বছর দেশের খ্যাতকীর্তি ব্যক্তিদের নিয়ে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট জুরি বোর্ড গঠন করবেন। বোর্ডের একজন সভাপতি নিযুক্ত হবেন, যার সভাপতিত্বে মূল্যায়নপ্রক্রিয়া পরিচালিত হবে। জুরি বোর্ড সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করবেন এবং পুরস্কার প্রাপ্তদের নির্বাচিত করবেন।

সিলেট মিরর সম্পাদক আহমেদ নূর বলেন, ‘সংবাদপত্রের ইতিহাসে নতুন একটি সংযোজন, দৈনিক সিলেট মিরর। সিলেট সম্পদসমৃদ্ধ একটি অঞ্চল। প্রকৃতিও বৈচিত্র্যপূর্ণ। শিল্প-সংস্কৃতির নানা উপাদান এই অঞ্চলেই শুধু সীমাবদ্ধ নয়, দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্বসমাজেও স্থান পেয়েছে সম্মানের সঙ্গে। এই অঞ্চলের মানুষকে কেন্দ্রে রেখে বাংলাদেশের মানুষের কাছে বস্তুনিষ্ঠ তথ্য পরিবেশনের দায়বোধ গ্রহণ করেছে সিলেট মিরর। সিলেট মিরর-এর অনুপ্রেরণা বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ, সকল গণ-আন্দোলন, দেশজ চেতনা এবং পাঠকের অকৃত্রিম সৌহার্দ্য।’

তিনি বলেন, ‘পাঠকের এ ভালোবাসা দায়বোধ বাড়িয়ে দেয় প্রতিষ্ঠান দৈনিক সিলেট মিররকে। তিনি বলেন, সমাজের চিন্তার অগ্রগতি এবং সুস্থ সমাজ নির্মাণের সঙ্গে যুক্ত মানুষদের মূল্যায়নের জন্য আমাদের সাধ্যমতো ভূমিকা গ্রহণের প্রত্যয়ে স্ব স্ব ক্ষেত্রে কীর্তিমান বাঙালির সৃষ্টিশীল কাজে কিঞ্চিত ভূমিকা রাখার আকাক্সক্ষা নিয়ে প্রবর্তন করা হয়েছে সিলেট মিরর পুরস্কার। যা পরবতী প্রজন্মের নাগরিকদের সৃজন-মনন উভয় ক্ষেত্রে আরও উৎসাহী ও দায়িত্বশীল হওয়ার অনুপ্রেরণা যোগাবে।

শেয়ার করুন