খালেদা-সাঈদীর মুক্তি দাবি জামায়াত সেক্রেটারির!

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: ‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে’- বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি ডা. শফিকুর রহমান। একই ভাবে মাওলানা দেলওয়ার হোসাইন সাঈদীকেও কারাগারে রাখা হয়েছে বলে দাবি তার। তিনি সরকারের কাছে খালেদা-সাঈদীসহ সকল ‘রাজবন্দীদের’ মুক্তির দাবিও জানান।

নগরীর মানিকপীর রোডের মালঞ্চ কমিউনিটি সেন্টারে শনিবার সিলেট মহানগর জামায়াতের উদ্যোগে সাংবাদিক, পেশাজীবি, বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ ও রাজনীতিবিদদের সম্মানে অনুষ্ঠিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ দাবি জানান।

এ অনুষ্ঠানে তিনি আরও বলেন, ‘সরকার পুরো বাংলাদেশ আজ একটি বৃহৎ কারাগারে পরিণত হয়েছে। দেশ আমাদের সকলের। এখানে এক দল বা এক ব্যক্তির স্বৈরতান্ত্রিক শাসন চলতে পারেনা। বন্দীদশা থেকে দেশ জাতিকে মুক্ত করতে হবে।’

জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগর আমীর এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের সভাপতিত্বে আলোচনায় ভাষা সৈনিক অধ্যক্ষ মাসউদ খান বলেন, বাংলাদেশ হচ্ছে ইসলামী আন্দোলনের জন্য সম্ভাবনাময় জনপদ। তাই ইসলামী আন্দোলনের সকল দলের নেতাকর্মীদের একে অপরকে নিজের প্রতিদ্বন্ধী নয় সহায়ক শক্তি হিসেবে ভাবতে হবে। তাহলে দেশ ও জাতির কল্যান নিশ্চিত হবে।

সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, সিয়াম সাধনার মাস মাহে রমজানের শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে বিভাজন-বিভক্তির রাজনীতি পরিহার করতে হবে। সকলে মিলে এই নগরী ও এই দেশকে নিজেদের মত করে সাজানোর প্রতশ্রুতি গ্রহণ করি।

মহানগর জামায়াত সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদের পরিচালনায় আরও বক্তব্য দেন- জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক দায়িত্বশীল অধ্যাপক ফজলুর রহমান, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর মাওলানা রেজাউল করিম জালালী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুকতাবিস উন নুর, সিলেট জেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান, জেলা উত্তরের আমীর হাফিজ আনোয়ার হোসাইন খান, সিলেট মহানগর নায়েবে আমীর হাফিজ আব্দুল হাই হারুন।

মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা ড. মো ইনামুল হক চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে: কর্ণেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদ ও অধ্যাপক আব্দুল আহাদ, জামায়াতের কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য মাওলানা হাবীবুর রহমান, সিলেট মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর মো: ফখরুল ইসলাম, জেলা দক্ষিণের নায়েবে আমীর মাওলানা লোকমান আহমদ ও সেক্রেটারী মোঃ নজরুল ইসলাম, জেলা উত্তরের সেক্রেটারী মাওলানা জয়নাল আবেদীন, সিলেট মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ও কাউন্সিলার রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, জমিয়তের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, খেলাফত মজলিসের সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান তাপাদার, এলডিপির সিলেট জেলা সভাপতি সায়েদুর রহমান চৌধুরী রুপা, লেবার পাটির সিলেট মহানগর সভাপতি মাহবুবুর রহমান খালেদ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি-পার্থ) মোজাম্মেল হোসেন লিটন, জাগপা সিলেট জেলা সভাপতি শাহজাহান আহমদ লিটন, এনডিপি সিলেট জেলা সভাপতি আনিসুর রহমান, জমিয়তের সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা মাহমুদুল হাসান, ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব মুফতী ফয়জুল হক জালালাবাদী, ইসলামী ঐক্যজোট সিলেট জেলা সভাপতি মাওলানা আসলাম রহমানী ও মহানগর সভাপতি মাওলানা জহুরুল হক, নেজামে ইসলাম পার্টি সিলেট জেলা সভাপতি মুফতী আবু ইউসুফ চৌধুরী, কাউন্সিলার আব্দুর রকিব তুহিন, কাউন্সিলার সোহেল আহমদ রিপন, কাউন্সিলার এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জল, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ আল হোসাইন, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজ নজমুল ইসলাম, দৈনিক জালালাবাদের নির্বাহী সম্পাদক আব্দুল কাদের তাপাদার, সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ ও সিনিয়র সহ-সভাপতি এনামুল হক জুবের, সিলেট মহানগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারী মো: আব্দুর রব, শাহজাহান আলী ও ড. নুরুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ।

মাহফিলে দেশ-জাতির মঙ্গল ও জাতীয় নেতৃবৃন্দের মুক্তি-সুস্থতা কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।

শেয়ার করুন