আত্মবিশ্বাসী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে আজ বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক :: ৩০ মে শুরু হবে বিশ্বকাপের মেগা ইভেন্ট। বিশ্বকাপ প্রস্তুতির অংশ হিসেবে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার বিকালে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টাইগারদের ত্রিদেশীয় সিরিজের এই মিশন। ডাবলিনের ক্যাসল অ্যাভিনিউতে ম্যাচটি শুরু হবে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বিকাল পৌনে ৪টায়। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টিভি ও মাছরাঙা টিভি।

গত ৫ মে শুরু হয়েছে এই সিরিজ। উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে ১৯৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী সূচনা করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উদ্বোধনী দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন স্বাগতিকদের উড়িয়ে দিয়েছে বিশ্বরেকর্ড গড়ে। সেখানে বাংলাদেশের অবস্থা ছিলো বিবর্ণ। আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে হেরেছে ৮৮ রানে। আত্মবিশ্বাসী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে কেমন করে বাংলাদেশ, সেটা দেখতে মুখিয়ে আছেন ক্রিকেট ভক্তরা।

বিশ্বকাপের আগে দ্বিতীয় সারির একটি দলের বিপক্ষে হারটা কোনওভাবে মানতে পারছেন না ক্রিকেট ভক্তরা। নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমনও কিছুটা হতাশ। তার কাছে এই হারটা অপ্রত্যাশিত, ‘এভাবে হেরে যাওয়াটা একটু অপ্রত্যাশিত। যদিও এটা একটা অনুশীলন ম্যাচ ছিলো। সুতরাং এটা নিয়ে কথা বলার তেমন কিছু নেই। আমাদের জন্য আজকের ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ। সেখানে আমরা কী করি, সেটাই দেখার বিষয়।’

সামনে বিশ্বকাপ থাকায় এই সিরিজ গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন বাশার, ‘বিশ্বকাপ সামনে রেখে, এই আসরটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অনুশীলন ম্যাচে দল অনেক কিছু চেষ্টা করে। যা সব সময় কাজ করে না। সেটাই হয়তো হয়েছে। কন্ডিশনটাও কঠিন ছিলো, প্রচণ্ড ঠাণ্ডা ছিলো। ফলে মানিয়ে নিতে সমস্যা হয়েছে। তবে আমি নিশ্চিত মূল ম্যাচে আমাদের ছেলেরা ভালো খেলবে।’

মাশরাফি অবশ্য ঠাণ্ডাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে চাইলেন না, ‘আমার কাছে মনে হয় না এই ঠাণ্ডাকে আমরা মানিয়ে নিতে পারবো। এখানে যারা থাকে তারাও স্ট্রাগল করে ঠাণ্ডার সঙ্গে। এর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই আসলে। ফলে আমাদেরকে মানসিকভাবে শক্ত হতে হবে। দিনশেষে খেলতে নেমে ঠাণ্ডা ছিলো, এটা কোন অজুহাত হতে পারে না।’

প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ দলের প্রস্তুতি বলতে কেবল সাকিবেরেই বলা যায়। প্রতিপক্ষ তিনশ ছাড়ালেও ১০ ওভারে মাত্র ৩০ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছেন তিনি। পরে ব্যাটিংয়ে নেমে পেয়েছেন হাফসেঞ্চুরি। চোট কাটিয়ে ফেরার লড়াইয়ে থাকা রুবেল হোসেন শতভাগ দিয়ে বোলিং করলেও ছিলেন বেশ খরুচে। যদিও পেয়েছেন দুটি উইকেট।

শেষ সময়ে তাসকিন ও ফরহাদকে সুযোগ দিয়েছেন নির্বাচকরা। কিন্তু তারা দুজনই বেশ খরুচে বোলিং করেছেন। তাসকিন অবশ্য উইকেট নিয়েছেন তিনটি। তবে বোলিংটা ছিলো ছন্নছাড়া। অন্যদিকে ফরহাদ ছিলেন অনেকটাই বাজে। সবমিলিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচের খড়া কাটিয়ে মূল ম্যাচ ভালো করতে মুখিয়ে বাংলাদেশ দল।

এই সিরিজে ডাবল লিগ পদ্ধতিতে একটি দল চারটি করে ম্যাচ খেলবে। লিগ পর্ব শেষে পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল ফাইনাল খেলবে। বিশ্বকাপের আগে নিজেদের শেষবারের মতো ঝালিয়ে নেওয়ার জন্য মাশরাফিদের সামনে এটাই শেষ সুযোগ। তাছাড়া সিরিজে যদি টাইগাররা চ্যাম্পিয়ন হয় বা ভালো কিছু করতে পারে। তাহলে বিশ্বকাপ মঞ্চে খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসও থাকবে তুঙ্গে।

শেয়ার করুন