‘সিলেট চলচ্চিত্র উৎসব নতুন নির্মাতাদের জন্য নতুন দুয়ার খুলে দেবে’

সিকৃবি সংবাদদাতা :: সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে আগামী ২৩ এপ্রিল শুরু হতে যাচ্ছে সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের তৃতীয় আসর। এ উৎসবের আয়োজনকে স্বাগত জানিয়েছেন দেশ বিদেশে চলচ্চিত্র নির্মাতা, সমালোচক, লেখক, অভিনেতা ও অভিনেত্রীরা। এ ধারাবাহিকতায় এবার যোগ দিয়েছেন বলিউড তারকা ইয়াশপাল শর্মা। বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের ফেসবুক পেজে ভিডিও বার্তায় চলচ্চিত্র উৎসব নিয়ে অনুভূতি জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ স্বাধীনধারার নির্মাতাদের উৎসাহ দিতে চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করছে। আগামী ২৩ এপ্রিল থেকে ২৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই উৎসব নতুন নির্মাতাদের জন্য এক নতুন দুয়ার খুলে দিবে। সিলেট চলচ্চিত্র উৎসব এবার তৃতীয় বারের মত আয়োজিত হচ্ছে। আমি এর আয়োজকদের শুভ কামনা জানাই। এবং সবাই উৎসবে যেয়ে চলচ্চিত্র উপভোগ করবেন’।

বাংলাদেশে সম্প্রতি তৌকির আহমেদ পরিচালিত ফাগুন হাওয়ায় চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন। ২০০১ সালে অস্কারে ভারতের চলচ্চিত্র হিসেবে আলোচিত আমির খানের বিখ্যাত সিনেমা ‘লগন’ এর বিশ্বাসঘাতক ব্যাটসম্যান লক্ষ্যা, অর্থাৎ ইয়াশপাল শর্মা। তার অভিনয় ঝুলিতে বলিউডের নানামাত্রিক চলচ্চিত্রের সাফল্যের পালক রয়েছে। ‌‘লগন’ চলচ্চিত্র থেকে শুরু করে‌ ‌‘গঙ্গাজল’, ‘গ্যাংস অব ওয়সিপুর’ হয়ে ‘রাউডি রাঠোর’ ,‘পুকার’, ‘সিং ইজ কিং’ সব রকম চলচ্চিত্রে সমান স্বাচ্ছন্দ্য তার।

উল্লেখ্য, স্বাধীনধারার নির্মাতাদের উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে গত দুবছর যাবৎ সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ। আগামী ২৩ এপ্রিল থেকে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে উৎসব শুরু হবে।

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন শাওন জানান, ‘এবারের আসরে ১১১টি দেশ থেকে ৩০৩৬টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র জমা পড়ে। যার মধ্যে বাছাইকৃত চলচ্চিত্রগুলো উৎসবে প্রদর্শিত হবে। এছাড়াও থাকবে বাংলাদেশ ও ভারতীয় নির্মাতাদের তৈরি আমন্ত্রিক পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের বিশেষ প্রদর্শনী ও চলচ্চিত্র বিষয়ক কর্মশালা।

এবারের আসরে জুরি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র নির্মাতা আশরাফ শিশির, অভিনেতা মনোজ কুমার, নির্মাতা মুক্তাদির ইবনে সালাম ও ভারতীয় চলচ্চিত্র সমালোচক সিদ্ধার্থ মাইতি। গত দু আসরের মত এবারও উৎসবের প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে আছেন উপমহাদেশের বিখ্যাত চলচ্চিত্র উৎসব বিশেষজ্ঞ প্রেমেন্দ্র মজুমদার। এছাড়াও উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন কলকাতার চলচ্চিত্রকর্মী অঙ্কিত বাগচি।

গত ৩০ মার্চ উৎসব শুরু হওয়ার কথা থাকলেও শেষ মূহুর্তে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ঘোরী মোঃ ওয়াসিমের সড়কে মৃত্যুর ঘটনায় উৎসব পিছানোর সিদ্ধান্ত নেন আয়োজকরা।

শেয়ার করুন