চাঁপাইনবাবগঞ্জে হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণের পর হত্যার মামলায় পাঁচ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাদের প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং পৃথক ধারায় আরও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২, চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিচারক মো. শওকত আলী এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় দুই আসামি উপস্থিত ছিলেন। বাকি ৩ জন আসামি পলাতক রয়েছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের মালবাগডাঙ্গা গ্রামের শ্যামাপদ রবিদাসের ছেলে নয়ন কর্মকার রবিদাস (৩২), একই এলাকার রতন রবিদাসের ছেলে নিতাই চন্দ্র রবিদাস (৩০), একই এলাকার মৃত সচেন দাসের ছেলে সুভাস দাস (৪৬), একই উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের চাকপাড়া গ্রামের খোকন রবিদাসের ছেলে প্রশান্ত রবিদাস (২৮), একই ইউনিয়নের সোনারপট্টি গ্রামের বিরেন দাসের ছেলে প্রশান্ত রবিদাস (২৬)।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট আঞ্জুমান আরা জানান, ২০১৫ সালের ১৩ জুন আসামিরা ফুসলিয়ে আয়েশা খাতুনকে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার মহারাজপুরে মেলার মোড় এলাকার একটি ডোবায় ফেলে দেয়। পরে ১৪ জুন সকালে পুলিশ ওই স্থান থেকে আয়েশা খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় তৎকালীন নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক শামিম আকতার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে হত্যা মামলা করে। পরে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করে ওই সালের ১৪ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মো. সরোয়ার রহমান। সাক্ষ্য প্রমাণাদি শেষে বিচারক এ রায় দেন।

শেয়ার করুন