স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে নিহত হলেন গোলাপগঞ্জের পারভীন

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে চরমপন্থী বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের মধ্যে রয়েছেন সিলেটের গোলাপগঞ্জের  হুসনে আরা পারভীন (৪২)। তিনি গোলাপগঞ্জের লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের জাঙ্গালহাটা গ্রামের মৃত নুরুদ্দিনের মেয়ে।

নিউজিল্যান্ডে বসবাসকারী স্বজনদের বরাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দেশে থাকা নিহত হুসনে আরার বড় বোন রওশন আরা বেগম। তিনি বলেন, ‘নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় একটি মসজিদ রয়েছে। এই মসজিদের একাংশে নারীরা ও অন্য অংশে পুরুষরা নামাজ আদায় করেন। ঘটনার প্রায় আধঘণ্টা আগে হুসনে আরা তার স্বামীকে (প্যারালাইসড) নিয়ে মসজিদে যান। সেখানে স্বামীকে হুইল চেয়ার করে মসজিদে পুরুষদের অংশে ভেতরে রেখে হোসনে আরা নিজে নারীদের অংশে নামাজ আদায় করতে যান। ১৫ মিনিট পর গুলির শব্দ শুনে পারভীন তার স্বামীকে বাঁচানোর জন্য বের হন। এ সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তাকে গুলি করলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।’

এদিকে সন্ত্রাসী হামলা থেকে বেঁচে গেছেন হুসনে আরার স্বামী ফরিদ উদ্দিন আহমদ। হামলার সময় কয়েকজন লোক তাকে বাইরে বের করে নিয়ে আসে। তিনি বর্তমানে ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে তাদের তার বাসায় রয়েছেন। ফরিদ উদ্দিনের বাড়ি বিশ্বনাথ উপজেলার চকগ্রামে।

দেশে থাকা হোসনে আরা পারভীনের ভাগ্নে মাহফুজ চৌধুরী বলেন, নিউ জিল্যান্ডের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিহত পারভীনের মরদেহ এখনও তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেনি। পুলিশের পক্ষ থেকে পারভীনের নিহত হওয়ার বিষয়টি নিউ জিল্যান্ডে অবস্থানকারী তার স্বজনদের জানানো হয়েছে।

গোলাপগঞ্জ থানার ওসি এ.কে.এম. ফজলুল হক শিবলি জানান, খবর পেয়ে তারা পারভীন আক্তারের গ্রামের বাড়ী জাঙ্গালহাটা পরিদর্শন করেছেন এবং নিহতের স্বজনদের সাথে কথা বলেছেন।

শেয়ার করুন