সিলেটের মঞ্চে ‘ওল্ড ম্যান এন্ড দ্যা সি’তে মুগ্ধ দর্শক

রোববার ‘হট্টমালার ওপারে’

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: একুশের চেতনায় সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট আয়োজিত নাট্য প্রদর্শনীতে শনিবার কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে মঞ্চস্থ হয় থিয়েটার সিলেটের নাটক ‘ওল্ড ম্যান অ্যান্ড দ্যা সি’। নোবেল বিজয়ী আর্নেস্ট হেমিংওয়ের উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটির অনুবাদ, নাট্যরূপ, নির্দেশনা ও নাটকটিতে একক অভিনয় করেছেন কামরুল হক জুয়েল।

পুরো নাটকে উনার সাথে ছিলেন পল্লবী, সুপান্ত, রাব্বি, সৌরভ, নাসিম, সাদ, সীমান্ত, লিমন, পৃথা, মুক্তামনি, ফুয়াদ ও অনিক। রোববার একই মঞ্চে উৎসবের সপ্তমদিন মঞ্চস্থ হবে দর্পণ থিয়েটার সিলেটের নাটক ‘হট্টমালার ওপারে।’

আর্নেস্ট হেমিংওয়ের নোবেল বিজয়ী এক কালজয়ী উপন্যাস ‘ওল্ড ম্যান অ্যান্ড দ্যা সি’। এই উপন্যাসের কাহিনী নিয়েই উপন্যাসের নামানুসারে লিখা এই নাটকটিতে দেখা যায় বুড়ো সান্তিয়েগো চুরাশি দিন ধরে মাছ ধরতে সমুদ্রে যাচ্ছে কিন্তু প্রতিদিনই খালি হাতে ফিরে আসছে। এ নিয়ে সবাই হাসাহাসি করে। কিন্তু বুড়োজীবন ও বয়সের কাছে হার মানতে চায়না।

আবার সাগরে যায় এবং বিশাল এক মার্লিন মাছের সাথে শুরু হয় তার লড়াই। মাছের সাথে তার একা একা বলা কথায় প্রতিফলিত হয় তার জীবন দর্শন। শেষ পর্যন্ত মাছটাকে ধরতে সমর্থ হলেও হাঙ্গরদের হাত থেকে মাছটাকে বাঁচাতে শুরু হয় বুড়োর আরেক লড়াই। এই নাটকটির বুড়ো যেন প্রতিটি মানুষের প্রতিচ্ছবি যারা প্রতিদিন একটা ভালো দিনের আশা করে, সংগ্রাম করে, ব্যর্থ হয় আবার আশা করে একটি সুন্দর সময়ের। আবার ব্যর্থ হয় কিন্তু সংগ্রাম থেমে থাকেনা।

নাটক শেষে অংশগ্রহণকারী দলের হাতে উৎসব স্মারক ও পোস্টার তুলে দেন নর্থ ইষ্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের উপাচার্য প্রফেসর ড. আতফুল হাই শিবলী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন ও সভাপতি মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশু। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত।

২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই নাট্য প্রদর্শনীতে সিলেটের ১৪টি নাট্য সংগঠন তাদের প্রযোজনা নিয়ে অংশগ্রহণ করবে। আগামি ১০ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় নাটক মঞ্চস্থ হবে।

শেয়ার করুন