সমাজকে আলোকিত করতে বই পড়তে হবে: প্রফেসর মো. আব্দুল আজিজ

কেমুসাস’র ৮২বর্ষের সাধারণ সভা

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: আলোকিত মানুষ সৃষ্টি ও কল্যাণকামী সমাজ প্রতিষ্ঠার আহবান জানানোর মধ্য দিয়ে দেশের অন্যতম প্রাচীন সাহিত্য প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের ৮২ বর্ষের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি ২০১৯) সন্ধ্যায় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে সংসদের সভাপতি প্রফেসর মো. আব্দুল আজিজ বলেন, সাহিত্য সংসদ সিলেট তথা বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান। এর উন্নতিতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সংসদের আজকের অবস্থান আমাদের পূর্বসূরীদের গৌরবজনক অবদান এবং সংসদের সকল সদস্যদের সহযোগিতার ফলে সম্ভব হয়েছে। আমাদেরকে কল্যাণকামী মানসিকতা পোষণ করতে হবে। সমাজকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য, আলোকিত করার জন্য আমাদেরকে বেশী করে বই পড়তে হবে।

সাহিত্য সংসদের নিজস্ব অডিটোরিয়াম শহীদ সোলেমান হলে অনুষ্ঠিত সভায় সংসদের সাধারণ সম্পাদকের প্রতিবেদন পেশ করেন কেমুসাস’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী। সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যে দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবীত হয়ে শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতিচর্চার বিকাশে কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের পূর্বপুরুষদের রেখে যাওয়া এই আমানত রক্ষার দায়িত্ব আমাদের সকলের।

কেমুসাস’ এর সহসভাপতি গল্পকার সেলিম আউয়াল এবং সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল মুকিত অপির যৌথ পরিচালনায় সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন শামসির হারুনুর রশীদ। শোক প্রস্তাব পাঠ করেন কার্যকরী পরিষদের সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ তাহের। বিগত সাধারণ সভার কার্যবিবরণী পাঠ করেন সহ-সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মুমিন আহমদ মবনু। আয়-ব্যয়ের হিসাব, অডিট রিপোটর্, প্রস্তাবিত ২০১৯-এর বাজেট পেশ করেন সংসদের কোষাধ্যক্ষ অ্যাডভোকেট আব্দুস সাদেক লিপন। সভায় ২০১৯ সালের প্রায় ৭১ লাখ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট, ২০১৮ সালের আয়-ব্যয়ের হিসাব, অডিট রিপোর্ট ও বিগত বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী অনুমোদন করা হয়।

সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রবীণ শিক্ষাবিদ মদন মোহন কলেজের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক বিজিত কুমার দে। সভায় মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন ও বিভিন্ন প্রস্তাব রাখেন পৃষ্ঠপোষক সদস্য আফতাব চৌধুরী, আজীবন সদস্যদের মধ্যে মোহাম্মদ বাদশা গাজী, আব্দুল মুহিত দিদার, জালাল জয়, পলাশ আফজাল, কামাল আহমদ, মাওলানা আব্দুল হাফিজ খান, মো. এখলাছুর রহমান, অ্যাডভোকেট মো. আলিম উদ্দিন, তাসলিমা খানম বীথি, মো.আব্দুল মালিক, মো. মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল, মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, মো.আজহার উদ্দিন জাহাঙ্গীর, বাছিত ইবনে হাবীব, শামসীর হারুনুর রশীদ, মো.আব্দুল জলিল চৌধুরী, মো. আব্দুর রশীদ, এম.এ. মালেক চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ রুহেল, অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ, এম আশরাফ আলী, আমিনা শহীদ চৌধুরী মান্না, ইছমত হানিফা চৌধুরী।

শেয়ার করুন