গবেষক সুমনকুমার দাশের ‘লোকসাধকের দরবারে’ প্রকাশিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: লোকসংস্কৃতি গবেষক, প্রাবন্ধিক ও সাংবাদিক সুমনকুমার দাশের ‘লোকসাধকের দরবারে’ বইটি প্রকাশিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বইটি প্রকাশ করেছে সিলেটের প্রকাশনা সংস্থা নাগরী। নগরের চৌহাট্টা এলাকার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে চলমান পক্ষকালব্যাপী সিলেট বইমেলায় বইটি নাগরীর স্টলে পাওয়া যাবে। বইটিতে ১৩ জন সংগীতজ্ঞের সঙ্গে লেখকের ব্যক্তিগত স্মৃতি উপস্থাপিত হয়েছে। বইটির মূল্য রাখা হয়েছে ১৯০ টাকা। তবে পাঠকেরা বইটি মেলায় ২৫ শতাংশ ছাড়ে কিনতে পারবেন। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন সুভাষ চন্দ্র নাথ।

মেলা-মচ্ছব-উরস কিংবা লোকগান-লোকনাট্যের আসরে ঘুরে বেড়ানোর সুবাদে লোকসংস্কৃতি গবেষক সুমনকুমার দাশের কত কিছু দেখা হয়, কত কিছু জানা হয়, কত মানুষের সঙ্গে পরিচয় হয়। গানকেন্দ্রিক আসর কিংবা বাউলের আখড়া এবং ফকিরের ডেরায় নিয়মিত আসা-যাওয়া আর ওঠা-বসার সুবাদে অনেক লোকসাধকের সঙ্গে পরিচয়ও হয়, এ বই সেসব লোকসাধক নিয়ে। তাদের সঙ্গে ব্যক্তিগত মেলামেশার একান্ত ব্যক্তিগত ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন পরম্পরাবিহীন টুকরো-টুকরো কিছু স্মৃতি লেখক এখানে লিখেছেন।

বইটি এক অর্থে লেখকের আত্মস্মৃতিও বটে। এ স্মৃতির মূল নায়কেরা লোকায়ত বাংলার সাধক-বাউল-ফকির আর শিল্পী। এঁদের অধিকাংশই লোকচক্ষুর আড়ালে নিজের মতো করে লোকগানকে আঁকড়ে ধরে বেঁচেবর্তে ছিলেন কিংবা কেউ কেউ এখনও রয়েছেন। এ বইয়ে ১৩ জন সংগীতজ্ঞের কথা রয়েছে, যাঁদের অনেকের গল্প আমাদের তথাকথিত নাগরিক সমাজে অনেকটাই অচেনা, অজানা। তাই পাঠক এসব লেখা পড়তে গিয়ে দারুণ গদ্যশৈলীতে উপস্থাপিত এক অনুপম জগতের সন্ধান পাবেন।

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার সুখলাইন গ্রামে জন্মগ্রহণকারী সুমনকুমার দাশ ‘লোকসাধকের দরবারে’ বইটিতে ১৩ জন সংগীতজ্ঞকে নিয়ে লিখেছেন। এঁরা হচ্ছেন সুষমা দাশ, চন্দ্রাবতী রায়বর্মণ, কফিলউদ্দিন সরকার, গিয়াসউদ্দিন আহমদ, রামকানাই দাশ, বিদিতলাল দাস, কারি আমীর উদ্দিন আহমদ, হিমাংশু গোস্বামী, দুলাল ভৌমিক, রোহী ঠাকুর, রণেশ ঠাকুর, ইসমাইল ও কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্য।

শেয়ার করুন