সিলেটে শুরু হলো প্রথম জাতীয় লোক নাট্যোৎসব

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: প্রথমবারের মত দেশের ৮ টি বিভাগকে নিয়ে জাতীয় লোক নাট্যোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে সিলেটে।

রোববার বিকাল ৫ টায় কবি নজরুল অডিটোরিয়াম মুক্তমঞ্চে ধমসাবাদ্য বাজিয়ে ৮ দিনব্যাপী লোক নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাট্যজন নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। ‘লোকবাংলার আহবানে, মঞ্চ জাগাও জয়গানে’ এই স্লোগানে সিলেটের প্রতিশ্রুতিশীল নাট্য সংগঠন নাট্যমঞ্চ সিলেট এই উৎসবের আয়োজন করে।

শুরুতেই সিলেটের মনিপ‚রী নৃত্য পরিবেশন করে মনিপুরী নৃত্য সংগঠন এমকা। এরপর গামছা বাদ্য বাজিয়ে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। উৎসবের উদ্বোধন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু।

নাট্যমঞ্চ সিলেটের সভাপতি রজত কান্তি গুপ্ত’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, ভারতীয় দুতাবাসের সহকারী হাই কমিশনার এলকৃষ্ণ মূর্তি, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী ইমদাদুল ইসলাম, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি কামাল বায়েজিদ, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ভবতোষ রায় বর্মন রানা, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবীর, সিনিয়র সাংবাদিক তাপস দাস পুরকায়স্থ, নাট্যব্যক্তিত্ব মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশু।

জাতীয় লোক নাট্যোৎসব উপলক্ষে লোক নাটকে মিলন কান্তি এবং লোক সঙ্গীতে বিশেষ অবদানের জন্য সুষমা দাসকে নাট্যমঞ্চ সম্মাননা প্রদান করা হয়। উদ্বোধনী দিনে সন্ধ্যা ৭টায় বরিশাল বিভাগের ভোলা থিয়েটার মঞ্চায়ন করে নাট্যাচার্য সেলিম আল-দ্বীনের নাটক ‘গ্রন্থিকগণ কহে’।

এছাড়া উৎসবে অংশ নেয় বরিশাল বিভাগের ‘ভোলা থিয়েটার’, রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জের ‘আলকাপ পঞ্চরস’, চট্টগ্রাম বিভাগের ‘অ্যাভাঁগার্ড’, ময়মনসিংহ বিভাগের ‘বহুরূপী নাট্যসংস্থা’, সিলেট বিভাগের ‘নাট্যমঞ্চ সিলেট’, ঢাকা বিভাগের ‘নাগরিক নাট্যাঙ্গন, ঢাকা’, খুলনা বিভাগের ‘বিবর্তন, যশোর’ ও রংপুর বিভাগের ‘রংপুর নাট্যকেন্দ্র’।

আগামী ২৮ জানুয়ারী পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অডিটোরিয়াম মঞ্চে নাটক মঞ্চায়ন হবে। উৎসব আয়োজনে সহযোগিতা করে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন ও সিলেট সিটি করপোরেশন।

এদিকে আগামীকাল সোমবার সন্ধ্যায় মঞ্চায়ন করা হবে রাজশাহী’র চাঁপাইনবাবগঞ্জ থিয়েটারের নাটক ‘আলকাপ পঞ্চরস’।

শেয়ার করুন