সিলেটে বিভাগে ৫১ কুষ্ঠ রোগী শনাক্ত

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: সিলেট বিভাগে কুষ্ঠ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা কমছেনা। গত ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভাগের চার জেলায় ৫১জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে পুরুষই বেশি। বেসরকারি সংস্থা দ্যা লেপ্রসি মিশন ইন্টারন্যাশনাল এ তথ্য জানিয়েছে। সাধারণ মানুষের মাঝে এ রোগ সম্পর্কে কুসংস্কার দূর করতে জনসচেতনা বাড়ানোর মাধ্যমেই কুষ্ঠ নির্মূল সম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রোববার বিশ্ব কুষ্ঠ দিবস উপলক্ষে সিলেটের লাক্কাতুরা চা বাগানে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এছাড়া দিবসের প্রতিপাদ্য নিয়ে বাগান এলাকায় র‌্যালিও করা হয়েছে। দিবসের এবারের উপপাদ্য বিষয় ‘বৈষম্য, অপবাদ আর কুসংস্কার, কুষ্ঠরোগের প্রতি না থাকুক আর’।

সরকারের ‘জাতীয় কুষ্ঠ উচ্ছেদ’ কর্মসূচির সহযোগী প্রতিষ্ঠান হীড বাংলাদেশ ও দ্যা লেপ্রসি মিশন ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে আলোচনা সভায় সিলেট বিভাগের কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা পরেশ চন্দ্র দেবনাথ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত পৃথিবীব্যাপী জনস্বাস্থ্যের জন্য এ রোগটি হুমকি হিসেবে বিরাজ করছে। তাই এটি নির্মূল ও প্রতিরোধের জন্য বাংলাদেশ সরকার সহ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং আক্রান্ত দেশসমূহ একযোগে কাজ করছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রতি বছর জানুয়ারি মাসের শেষ রোববার ‘বিশ্ব কুষ্ঠ দিবস’ পালন করা হয়ে থাকে। ভয়, কুসংস্কার এবং লজ্জার কারণে আক্রান্তরা এটিকে প্রকাশ করতে চান না। সাধারণ মানুষের মাঝে কুষ্ঠ রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো উচিত। যাতে তারা এই রোগ চিনতে পারে এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে এর চিকিৎসা করা হয়। যাতে সরকারি ও এনজিওগুলোর মাঠ পর্যায়ের স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরিবার পরিকল্পনার কাজের সময় কুষ্ঠ রোগেরও স্ক্যানিং করে। এতে সহজেই রোগী শনাক্ত করা সম্ভব।’

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- ডা. রক্ষা বিজয় ভট্টাচার্য্য, অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত লাক্কাতুরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা বাবলী টার্নবুল, শিক্ষক রঞ্জন বার্হগা, হীড বাংলাদেশ সুনমাগঞ্জ জেলার লেপ্রসি কন্ট্রোল সুপারভাইজার মো. মাহমুদ আলী প্রমুখ।

শেয়ার করুন