সিলেটে বিপিএল উত্তাপ ছড়ানোর অপেক্ষায়

মিজান আহমদ চৌধুরী : শুরুটা একেবারে সাদামাটা হলেও দিন অতিবাহিত হবার সাথে সাথে বেশ উত্তাপ ছড়িয়ে প্রথম পর্ব শেষে করেছে বিপিএল। এবার দ্বিতীয় পর্ব হবে প্রাকৃতিক সৌন্দের্যের রানী সিলেটে।

সিলেটের নামের সঙ্গে সিগনেচার হিসেবে থাকে চা-বাগানের ছবি। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি পড়েছে সেই চা-বাগানেরই মাঝখানে। বিমানবন্দর সড়ক দিয়ে এগিয়ে গেলে লাক্কাতুরা চা বাগানের মনোরম সৌন্দর্য। দেশের ক্রিকেটাররা অনেকবারই এখানে খেলতে এসেছেন, তবু সিলেট এলে মুগ্ধ হন বারবারই। বিদেশি ক্রিকেটারদেরও স্পর্শ করেছেন সিলেট মাঠের সৌন্দর্য।

বিপিএলের গত আসর শুরু হয়েছিল এখান থেকেই। নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে সিলেট ফেরায় শুরু থেকেই ছিল উত্তাপ। সাব্বির-নাসিররা টানা তিন ম্যাচ জিতে উৎসবে ভাসিয়েছিল চায়ের নগরীর মানুষদের। এবার ভিন্ন এক চ্যালেঞ্জ নিয়ে মঙ্গলবার দ্বিতীয় পর্ব শুরু করতে যাচ্ছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

ঢাকা পর্বের প্রথম ধাপে তিন ম্যাচে মাত্র একটি জয় নিয়ে সিলেট এসেছে সিক্সার্সরা। যদিও দলটি আগের চেয়ে এবার বেশি শক্তিশালী। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ওয়ার্নারকে দলে ভিড়িয়ে চমক আনলেও মাঠের শুরুটা সেই তুলনায় ভালো করতে পারেনি।

বিপিএলের দ্বিতীয় পর্বে নিজেদের মাঠে চারটি ম্যাচ পাবে সিলেট সিক্সার্স। আর এখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় দলটির সিনিয়র ক্রিকেটার অলক কাপালি, তিনি জানান, ‘প্রথম দুই ম্যাচ আমরা খুব ভালো খেলেছি। শেষ ম্যাচটা একটু খারাপ হয়ে গেছে। লক্ষ্য থাকবে প্রতিটা ম্যাচে ভালো করার, জেতার। এখানকার চারটা ম্যাচের উপর আমাদের অনেককিছু নির্ভর করছে।’

এদিকে, সবার আগে সিলেটে আসা সিক্সার্স অনুশীলনও করেছে সবার আগে। সোমবার সকালে জেলা স্টেডিয়ামে ছিল তিন ঘণ্টার অনুশীলন পর্ব। পরে খুলনা টাইটানস ও রাজশাহী কিংস অনুশীলনে নামে। দুপুরে সিলেট পৌঁছায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। সিলেট পর্বের প্রথম দিনে দুই ম্যাচে নামবে  ৪টি দল।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরের দ্বিতীয় পর্বে খেলতে ইতোমধ্যে সব দল সিলেট এসে পৌঁছেছেন। গত রোববার দিন-রাত মিলিয়ে সিলেটে পা রেখেছে সিলেট সিক্সার্স, খুলনা টাইটান্স ও রাজশাহী কিংস। সোমবার দিনে এসে পৌঁছেছে রংপুর রাইডার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও চিটাগাং ভাইকিংস। রাতে এসে পৌঁছেছে ঢাকা ডায়নামাইটস।

অন্যদিকে  টুর্নামান্টের আয়োজক সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম চূড়ান্ত প্রস্তুতি শেষ করেছে। বিপিএলের ঢাকা পর্বে স্পাইডার ক্যাম ও ড্রোন ক্যামেরার ব্যবহার করা হয়েছিল। তবে সিলেটে অনুষ্ঠিত ৮ টি ম্যাচে স্পাইডার ক্যাম ব্যবহার করা হবে না। আয়োজকরা সিলেটে স্পাইডার ক্যাম ব্যবহার করার মতো সুযোগ করতে পারেননি দেশের দৃষ্টিনন্দন এই স্টেডিয়ামে। তবে ড্রোন ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে সিলেট স্টেডিয়ামে।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় নয়নাভিরাম সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে রাজশাহী-খুলনা, আর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার ম্যাচে কুমিল্লা লড়বে স্বাগতিক সিলেটের বিপক্ষে।

শেয়ার করুন