রংপুরের শক্তি বাড়াতে বাংলাদেশে ডি ভিলিয়ার্স

স্পোর্টস ডেস্ক :  বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স। গত আসরে বাজিমাত করলেও চলতি মৌসুমটা একেবারেই সুখকর যাচ্ছে না অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার দলের। তবে এবার খানিক হাফ ছেড়ে বাঁচার যোগাড় রাইডার্স সমর্থকদের। কেননা ঢাকাতে হয়ে যাওয়া টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বের পর এবার সিলেটে নিজ দলের সঙ্গে যোগ দিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা ক্রিকেটার এবি ডি ভিলিয়ার্স।

বিপিএল ইতিহাসে অন্যান্য বারের থেকে এবার যেন তারকার ছড়াছড়িটা একটু বেশিই। এবারই প্রথমবারের মত খেলতে এসেছেন অ্যালেক্স হেলস, ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথের মত তারকা ক্রিকেটাররা। সেই বহরে নতুন করে যুক্ত হলেন বিশ্ব ক্রিকেটে ‘থ্রি সিক্সটি’ ডিগ্রি নামে খ্যাত আব্রাহাম বেঞ্জামিন ডি ভিলিয়ার্স।

তবে রংপুরের হয়ে মাঠ মাতাতে আসা এই তারকা ক্রিকেটার শুরুতেই স্বস্তি পাচ্ছেন না নিজ শিবিরে যোগ দিয়ে। কারণ এখনো অবধি নিজেদের শুরুর ছয় ম্যাচের মধ্যে ৪ টাতে হেরে বসেছে রাইডার্সরা। আর এতেই অবস্থান করছে পয়েন্ট টেবিলের পঞ্চম অবস্থানে। তাইতো দলে গেইল-হেলসদের মত টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্ট ক্রিকেটাররা থাকলেও এখানে এসেই বেশ দায়িত্ব নিয়ে মাঠে নামতে হবে ভিলিয়ার্সকে।

উল্লেখ্য, ডি ভিলিয়ার্সের পরবর্তী ম্যাচ আগামী ১৯ জানুয়ারি প্রতিপক্ষ সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১.৩০ মিনিটে।

এদিকে বাংলাদেশে আসার আগে এক ভিডিও বার্তাতে অবশ্য বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিলো ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারকে। যেখানে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘হ্যালো বাংলাদেশ, আমি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে এবি ডি ভিলিয়ার্স নিশ্চিত করছি যে ২০১৯ সালে রংপুর রাইডার্সের হয়ে বিপিএল খেলার জন্য বাংলাদেশে আসছি। এটা খুবই আনন্দের যে আমি মাশরাফির মত বড় নেতার নেতৃত্বে খেলবো যে সত্যিকারের কিংবদন্তি, আছে গেইলের মত খেলোয়াড়ও।’

এক নজরে রংপুর রাইডার্স স্কোয়াড-

দেশিঃ মাশরাফি বিন মুর্তজা (আইকন), নাজমুল ইসলাম অপু, মোহাম্মদ মিঠুন, শফিউল ইসলাম, সোহাগ গাজী, ফরহাদ রেজা, মেহেদি মারুফ, নাহিদুল ইসলাম, ফারদিন হোসেন এনি, আবুল হাসান রাজু ও নাদিফ চৌধুরী।

বিদেশিঃ ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা), অ্যালেক্স হেলস (ইংল্যান্ড), রবি বোপারা (ইংল্যান্ড), রাইলি রুশো (দক্ষিণ আফ্রিকা), বেনি হাওয়েল (ইংল্যান্ড) শন উইলিয়ামস (জিম্বাবুয়ে) ও শেলডন কটরেল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

শেয়ার করুন