জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর গ্রুপ ইউকে’র চিকিৎসা সেবা পেল ৫শ’ চক্ষু রোগী

চক্ষু শিবিরে বক্তব্য রাখছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান

সিলেটের সকাল রিপোর্ট ॥ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর গ্রুপ ইউকে’র অর্থায়নে ও আল মোস্তফা ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনায় ফ্রি চক্ষু শিবিরের উদ্বোধনকালে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, দেশের অর্থনীতির সিংহভাগই রেমিট্যান্সের অবদান। প্রবাসীরা মাতৃভূমি ছেড়ে বিদেশের মাটিতে থেকেও এদেশের হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের কষ্টার্জিত টাকা দেশের অর্থনীতিতে বিরাট ভূমিকা রাখছে। প্রবাসীরা বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের সুনাম কুড়িয়ে আনছেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি শনিবার সকালে জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের কুবাজপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।
ব্রিটেনের লন্ডন থেকে প্রকাশিত বহির্বিশ্বে বাংলাদেশীদের প্রথম ইংরেজি সাপ্তাহিক, বাংলা মিরর-এর সম্পাদক আব্দুল করিম গণির সভাপতিত্বে এবং সমাজসেবী আখলাকুর রহমান ও শামীম আহমদ এর যৌথ পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি আরও বলেন, স্বাধীনতা সংগ্রামসহ সকল প্রাকৃতিক দুর্যোগে প্রবাসীদের ভূমিকা প্রশংসনীয়। এ সরকার প্রবাসীদের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে উদ্যোগ গ্রহণ করবে। দেশের অগ্রযাত্রায়ও প্রবাসীরা ভূমিকা রাখবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
মন্ত্রী বলেন, গত দশ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের অর্জন ও উন্নয়ন কাজের প্রতি সুবিবেচনা করে এবং দেশের সামগ্রিক কল্যাণ, শান্তি ও সমৃদ্ধি অর্জনের স্বার্থে আগামী পাঁচ বছরের জন্য জনগণ আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় পাঠিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ সরকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নিতে মহা পরিকল্পনা গ্রহণ করবে। আগামী ৫ বছর দেশে মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের পাশাপাশি গ্রামীণ জনপথে শহরের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করবে।

চক্ষু শিবিরের একাংশ

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহ্ফুজুল আলম মাসুম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শংকর রায় প্রমুখ।
চ্যানেল এস ইউকে’র সহযোগিতায় ভার্ড চক্ষু হাসপাতাল, সুনামগঞ্জ’র বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ও পাইলগাঁও ইউনিয়নের ৫ শতাধিক দরিদ্র রোগীর চোখের পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষে বিনামূল্যে চশমা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়। পরে বাছাইকৃত ২৮জন রোগীর বিনামূল্যে চক্ষু অপারেশনের জন্য সুনামগঞ্জ ভার্ড চক্ষু হাসপাতালে পাঠানো হয়। শুরুতে বাংলা মিরর গ্রুপের পক্ষ থেকে মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করেন বাংলা মিরর গ্রুপের জগন্নাথপুর প্রতিনিধি অমিত দেব।
এদিকে, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর তার সংসদীয় এলাকা জগন্নাথপুরে এসে প্রথম এ কর্মসূচিতে অংশ নিলে সেখানে ছিল দলীয় নেতা-কর্মী ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

শেয়ার করুন