কানাইঘাটে চোরাচালানচক্রের সাথে বিজিবির গোলাগুলিতে কিশোর নিহত

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সনাতনপুঞ্জি সীমান্তে চোরাচালানচক্রের সাথে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবির সদস্যদের গোলাগুলির ঘটনায় সিরাজ উদ্দিন (১২) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সিরাজ উপজেলার লক্ষিপ্রসাদ ইউনিয়নের সনাতনপুঞ্জি গ্রামের মুতলিব মিয়ার ছেলে। তার পরিবারের দাবি, সে স্থানীয় সুরইঘাট এলাকা থেকে বাজার করে বাড়ি ফিরছিলো। পথিমধ্যে গুলিতে তার মৃত্যু হয়।

নিহত কিশোরের পিতা আব্দুল মুতলিব স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, ‘বাদ আসর তার ছেলে সিরাজকে স্থানীয় সুরইঘাট বাজার থেকে পরিবারের কেনাকাটা খরচ দিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে পাঠান। কিন্তু পথিমধ্যে সন্ধ্যা ৭টার দিকে আজিদ আহমদের বাড়ির উঠানে গুলিতে তার ছেলে মারা গেছেবলে স্থানীয়রা তাকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে পৌছে ছেলের রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।’

সুরইঘাট বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার সুবেদার সুরত আলী জানান, সন্ধ্যার দিকে ক্যাম্পের একদল বিজিবি সদস্যরা সিমান্তের ১৩১৪ নং পিলারের পাশে সনাতনপঞ্জি গ্রাম দিয়ে ভারত থেকে অবৈধ ভাবে একদল চোরাকারবারী চক্র কর্তৃক বিদেশী সিগারেটের একটি বড় চালান নিয়ে আসার সময় অভিযান চালিয়ে সিগারেট আটক করে।

এসময় বিজিবি’র কাছ থেকে আটককৃত সিগারেট জোরপূর্বক  নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তারা। তারা বিজিবি’র উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করে এবং ব্যাপক ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে বিজিবি আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়লে সিরাজ নামের ছেলেটি গুলিবিদ্ধ হয়। হামলায় বিজিবি’র এসিপি সাইদ, নায়েক ইমাম, নায়েক নুর নবী আহত হন বলে তিনি জানান। আহত ২ বিজিবি সদস্যকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলেও নায়েক নুর নবীকে সিওমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিজিবি ও চোরাকারবারীদের মধ্যে সৃষ্ট ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে সিরাজ উদ্দিন নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত হয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি সিলেটের উর্ধতন কর্মকর্তা ও বিজিবি’র দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছেন। এ ঘটনার তদন্ত রিপোর্টের কাজও চলছে।

 

শেয়ার করুন