‘আল-ইসলাহ এ অঞ্চলের ৮৬ বছরের জীবনচিত্রের অনন্য দর্পণ’

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের ১০২৪ তম সাহিত্য আসরে বক্তারা বলেছেন, সাহিত্য সংসদের মুখপত্র আল-ইসলাহ এ অঞ্চলের ৮৬ বছরের জীবনচিত্রের এক অনন্য দর্পণ। সাহিত্য-সংস্কৃতি ও মানব সভ্যতার বিবর্তনের অনেক দুর্লভ চিত্র আল-ইসলাহ’র পাতায় পাতায় লিপিবদ্ধ আছে। বক্তারা বলেন, বর্তমানকে আগামীদিনের জন্য জমা রাখার বলিষ্ঠ মাধ্যম হলো আল-ইসলাহ। এজন্য আল-ইসলাহকে সিলেটের সম্পদ বিবেচনা করে এটির লালন ও সংরক্ষণে সবার ভূমিকা রাখা উচিত।

বৃহস্পতিবার রাতে সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে অনুষ্ঠিত এ আসরে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক, কবি বাছিত ইবনে হাবীব।

আলোচনায় অংশ নেন- কেমুসাসের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দেওয়ান এ এইচ মাহমুদ রাজা চৌধুরী, কেমুসাসের সহ সভাপতি সেলিম আউয়াল, বিশিষ্ট কলামিস্ট ইনাম চৌধুরী, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক আব্দুল মুকিত অপি, প্রবীণ লেখক ও কবি এম এ হান্নান, যুক্তরাজ্য প্রবাসী আইনজীবি দেওয়ান মাহদি, কবি ও গল্পকার নাঈমা চৌধুরী।

সাহিত্য আসরে লেখাপাঠে অংশ নেন- সিরাজুল হক, এম আশরাফ আলী, কুবাদ বখত চৌধুরী রুবেল, আমিনা শহীদ চৌধুরী মান্না, শাহেদ শাহারিয়ার, মাহবুবুর রহীম, মামুন হোসেন বিলাল, মাও: আবুযর মাহতাবী, মোঃ বাহউদ্দিন বাহার, সাদিক হোসেন এপলু, সালিম আহমদ, তারিকুর রহমান, হিমেল মাহমুদ, রাফাত হাবীব, জেনারুল ইসলাম, মোঃ হামিদুল ইসলাম, শাহিনা জালালী, ডা. শাহ মো. ছাফিউর রহমান, লাহিন নাহিয়ান, মকসুদ আহমদ, টি এ সুলেমান, অধ্যাপক মাহবুবুর রউফ নয়ন, অধ্যাপক মোঃ ফজলে রাফি চৌধুরী, কাজী আল মামুন। সাহিত্য আসরে নতুন সংখ্যা আল-ইসলাহ এর মোড়ক উম্মোচন করা হয়।

সাহিত্য আসর উপস্থাপনা করেন গল্পকার তাসলিমা খানম বীথি। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কামাল আহমদ।

শেয়ার করুন