সিলেট বিভাগে ভোটের দায়িত্ব পালনে ৩৩ হাজার আনসার-ভিডিপির সদস্য

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট বিভাগের ২৮০৫টি ভোট কেন্দ্রে ৩৩ হাজার ৬৬০ জন আনসার-ভিডিপি সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। তারা ভোটকেন্দ্রের ভোট গ্রহণে সহায়তাসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবেন।

সিলেট বিভাগীয় আনসার-ভিডিপি রেঞ্জ পরিচালক সারাওয়ার জাহান চৌধুরী জানান, ‘আনসার-ভিডিপিদের শারীরিক যোগ্যতার ভিত্তিতে বাছাই করে প্রতি ভোট কেন্দ্রের জন্য ১ জন করে পিসি, ১ জন করে এপিসি, ৬ জন পুরুষ ও ৪ জন মহিলা আসনসার সহ মোট ১২ জন আনসার-ভিডিপির ৬ দিনের দায়িত্ব পালনের জন্য অঙ্গীভূত করা হয়েছে।’

এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৯৯২টি কেন্দ্র আনসার-ভিডিপির ১১ হাজার ৯০৪ জন সদস্য ভোট কেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করবেন। এদের মধ্যে পুরুষ ৭৯৬৩ জন ও মহিলা ৩৯৬৮ জন।

সুনামগঞ্জ জেলার ৬৬৮টি। কেন্দ্রে আনসার-ভিডিপির ৮ হাজার ০১৬ জন সদস্য ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করবেন। এদের মধ্যে পুরুষ ৫৩৪৪ জন ও মহিলা ২৬৭২ জন।

হবিগঞ্জ জেলার ৬৩৩টি কেন্দ্রে আনসার-ভিডিপির ৭ হাজার ৫৯৬ জন সদস্য ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করবেন। এদের মধ্যে পুরুষ ৫০৬৪ জন ও মহিলা ২৫৩২ জন।

মৌলভীবাজার জেলায় মোট ভোট কেন্দ্র ৫১২টি। এসব কেন্দ্রে আনসার-ভিডিপির ৬,১৪৪ জন সদস্য ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করবেন। এদের মধ্যে পুরুষ ৪,০৯৬জন ও মহিলা ২,০৪৮ জন।

প্রতি ভোট কেন্দ্রে ১২ জন করে আনসার-ভিডিপির দায়িত্ব পালন করবেন। এর মধ্যে পিসি, এপিসি সহ ৮ জন পুরুষ এবং ৪ জন মহলি সদস্য থাকবেন। পিসি ও এপিসিদের কাছে থাকবে আগ্নেয়াস্ত্র। আগ্নেয়াস্ত্ররের মধ্যে থাকবে একটি শর্টগান ও একটি রাইফেল।

এবারই প্রথম ভোট কেন্দ্রে দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্যদের হাতে তুরস্কের তৈরী শর্টগান থাকবে। ইতিপূর্বে শুধু রাইফেল দেয়া হতো।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রের দায়িত্ব পালনরত আনসার-ভিডিপিদের হাতে শর্টগান এবারই প্রথম সংযোজিত হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রতিটি উপজেলার নির্দিষ্ট স্থানে পিসি ও এপিসিদের নতুন আগ্নেয়াস্ত্র শর্টগানের ব্যবহার ও গুলি ছুড়ার অনুশীলন সম্পন্ন হয়েছে।

এছাড়াও ভোটকেন্দ্রে ব্যাটালিয়ন আনাসার সদস্যরাও কুইক রেন্সপন্স হিসেবে কাজ করবেন। এসব সদস্যদেরকে তদারকীয় পালন করবেন সিলেট বিভাগীয় পরিচালক, জেলা কমান্ড্যান্ট ও উপজেলা আনসার-ভিডিপির কর্মকর্তাগণ।

শেয়ার করুন