শৈলী’র নয়া সভাপতি মাজিদুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক তানভীর অনিক

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: প্রগতিশীল পাঠক সংঘ ‘শৈলী’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নতুন সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মাজিদুল ইসলাম চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন তানভীর অনিক। শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর ) সিলেট নগরীর বালুচরস্থ জামিআ সিদ্দিকিয়া মিলনায়তনে সংগঠনটনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের ৬ষ্ঠ বার্ষিক সাধারন সভায় এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ।

শৈলী সভাপতি ফিদা হাসানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন শৈলীর প্রধান উপদেষ্টা কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু। তিন পর্বে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলের প্রথম পর্ব শুরু হয় সকাল ৯:৩০ মিনিটে। এই পর্বে শৈলীর সভ্যরা মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। ২য় অধিবেশনে শৈলীর ২০১৮ অর্থবছরের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সাধারন সম্পাদক মাহফুজুর রহমান এবং বিগত বছরের আয় ব্যায়ের হিসাব ও ২০১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন অর্থ-সম্পাদক মাজিদুল ইসলাম চৌধুরী। বাজেটের উপর আলোচনা করেন,সালেহ আহমদ সাদী, সুফিয়ান আহমদ, মোহাম্মদ জাফর ইকবাল, রুমন আহমদ ও লুবাদা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক অর্থ সম্পাদক ও সুধী নেসার আহমদ জামাল, সুধী মোহাম্মদ তোফায়েল আহমদ। অন্যন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সুফিয়ান, অর্থ সম্পাদক মাজিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাহিত্য সম্পাদক সাইয়্যিদ মুজাদ্দিদ, প্রচার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান পাঠাগার সম্পাদক শামিম গাজি, শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক মনয়োয়ার হুসেন মহন এবং সদস্য কামাল উদ্দিন।

৩য় অধিবেশনে ২০১৭ অর্থবছরের কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করেন শৈলীর উপদেষ্টা এবং প্রধান নির্বাচন কমিশনার সৈয়দ মবনু। শৈলীর সভ্যদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল এবং সার্বিক কর্মদক্ষতার উপর ভিত্তি করে সদস্য নির্বাচন করেন নির্বাচন কমিশন। কমিশনে ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কবি সৈয়দ মবনু এবং কমিশনের সদস্য মাহবুব মুহম্মদ এবং সদস্য হেলাল হামাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শৈলীর প্রধান উপদেষ্টা কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু বলেন, শৈলী একটি ব্যাতিক্রমধর্মী সংগঠন। এর মূল কাজ হলো তরুণ প্রজন্মকে জ্ঞান বুদ্ধির দিক দিয়ে আগানো। জ্ঞান এবং বুদ্ধির সমন্বয়ে মানুষ যখন কর্ম করে তখন কর্মগুলো হবে মঙ্গলময়। দেশে সংগঠনের অভাব নেই কিন্তু মননশীলন নেতৃত্বের অভাব। শৈলীর উদ্দেশ্য হচ্ছে মন ও মননশীল ব্যক্তি গঠন। যা সঠিক নেতৃত্ব লাভের জন্য গুরুত্বপূর্ন। শৈলী মূলত এদিকে কাজ করে যাচ্ছে। শৈলী চাচ্ছে দেশের সর্বশ্রেনির মানুষের হৃদয়ে জ্ঞান বুদ্ধি কর্ম এবং প্রেমের সমন্নয়ে দয়াদর্শন জাগাতে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি ফিদা হাসানের বক্তব্যের মাধ্যমে ৬ষ্ঠ বার্ষিক সাধারণ সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। সভার শেষে দোয়া পরিচালনা করেন শৈলীর সুধি, জামিআ সিদ্দিকিয়ার পরিচালক মুফতি মনসুর আহমদ।

শেয়ার করুন