লোকগান উৎসবে মাতলো নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেটের নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো লোকগান উৎসব-১৪২৫। মঙ্গলবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কালচারাল ক্লাবের আয়োজনে উৎসবের উদ্বোধন করেন নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আতফুল হাই শিবলী।

সিলেট অঞ্চলের মরমী কবি সাহিত্যিকদের রচিত লোকগানকে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচিত করে তুলতে নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কালচারাল ক্লাবের নিয়মিত আয়োজনের অংশ হিসেবে এলোক গান উৎসবের আয়োজন করা হয়।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. আতফুল হাই শিবলী বলেন, ‘কিছুদিন আগেও আমাদেরসমাজে লোক গান খুব একটা জনপ্রিয় ছিলনা। যদিও বাঙ্গালী সংস্কৃতির অনবদ্য একটি অংশ এসবলোক গান।সে সময়ের সমাজ ব্যবস্থা,অর্থনীতি,রাজনীতির চিত্র ফুঠে উঠে এসব গানে। নতুন প্রজন্ম এ ধারার সংস্কৃতির প্রতি খুব একটা আগ্রহী না হওয়ায় হারিয়ে যেতে বসেছে বাঙ্গালী সংস্কৃতির অন্যতম এ অনুষঙ্গ। তাই নতুন প্রজন্মকে চিরায়ত লোক গানের চর্চা ওগবেষনায়আরো মনযোগী হতে হবে।’

নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটি কালচারাল ক্লাবের এমন আয়োজন নতুন প্রজন্মকে লোক সঙ্গীতের সাথে পরিচিত করে তুলতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সিলেট অঞ্চলের লোক সঙ্গীতকে নিয়ে গবেষনা কাজ করা লোক গবেষক ও লেখক সুমন কুমার দাশকে বিশেষ কৃতজ্ঞতা স্মারকতুলে দেয়া হয়। এসময় লোক গবেষক সুমন কুমার দাশ বলেন, ‘লোকগান নিয়ে গবেষনা করেত গিয়ে দেখা গেছে এইগান গুলোতেই লুকিয়ে রয়েছে সে সময়ের সমাজ,সংস্কৃতি ও জীবনআচারণের বর্ণনা। লোকগান চর্চার পাশাপাশি গবেষনা কাজেও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মনোনিবেশ দেয়ার আহবান জানান তিনি।’

এনইইউবি কালচারাল ক্লাবের সভাপতি ওমর হাসান শান্ত’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অলিউর রহমান এবং অপর্ণা ভৌমিকের সঞ্চালনায় লোক গান উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়েরব্যবসা প্রশাসন অনুষদের ডীন ড.তোফায়েল আহমদ।

উৎসবে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির কালচারাল ক্লাবের সদস্য ছাড়াও লোকগন পরিবেশন করে সিলেটের সাংস্কৃতিক সংগঠন একদল ফিনিক্স,বালিকণা সিলেট ও এমসি কলেজের সাংস্কৃতিক সংগঠন মোহনা। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন