রাখির বিয়ের খবর ভুয়া

বিনোদন ডেস্ক:: রাখি সাওয়ান্তের বিয়ে! জানার পর কেউ বিশ্বাসই করতে চাননি। এমনকি এ বিয়ে নিয়ে ছড়িয়েছিল নানা গুঞ্জন, তৈরি হয়েছিল মজার সব মিম (ব্যঙ্গাত্মক স্টিকার)। এবার জানা গেল, ৩১ ডিসেম্বর লস অ্যাঞ্জেলেসে রাখির বিয়ের সেই খবরটি ছিল ভুয়া। ঘোষণার সপ্তাহ না ঘুরতেই বিয়ের খবর বাতিল করে দিয়েছেন ‘বিতর্কের রানি’ রাখি সাওয়ান্ত। নিজেই জানিয়েছেন, বিয়ের ব্যাপারে মিথ্যে খবর দিয়েছিলেন তিনি।

গত ২৮ নভেম্বর একটি আমন্ত্রণপত্রের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছিলেন তিনি। সেখানে লেখা ছিল ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৫টা ৫৫ মিনিটে লস অ্যাঞ্জেলেসে দীপক কালাল বিয়ে করতে যাচ্ছেন রাখি সাওয়ান্তকে। ইতিমধ্যে বিয়ের অতিথি হিসেবে শাহরুখ খানের নাম নিশ্চিত করেছেন আইটেম গার্ল রাখি সাওয়ান্ত।

সেই গুজবের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। কথিত পাত্র দীপক কালালকেও বলেছেন, যেন তাঁকে ক্ষমা করে দেওয়া হয়। ভারতীয় সংবাদপত্র এবেলা জানিয়েছে, রাখি সাওয়ান্ত দীপক কালালকে বলেছেন, ‘ঘটনাটি নিয়ে আমার পরিবার আমার ওপর ক্ষুব্ধ। এত দিন ধরে চলচ্চিত্রে কাজ করছি, অনেক পরিশ্রম করেছি। এ রকম নোংরামি আমি কখনোই করতে চাইনি। আমি আমার পরিবারকে বোঝাচ্ছি। এমন নোংরা বিজ্ঞাপন আমি চাইনি; যা হয়েছে সেটা ভুলে যাও।’

পুরো ব্যাপারটির জন্য দীপককে দায়ী করে রাখি বলেছেন, ‘আমি একজন সহজ-সরল বিশ্বাসী মানুষ। মিথ্যে বলতে পছন্দ করি না। তোমার ফাঁদে পড়ে আমাকে মিথ্যে বলতে হলো।’

রাখির বিয়ে নিয়ে কয়েক দিন ধরে সামাজিক মিডিয়ায় আলোচনা চলছিল। অনেকেই তাঁর বিয়ের খবরটি সত্য বলে মানতেই পারছিলেন না। দীপিকা ও প্রিয়াঙ্কার বিয়ের সময় বলে আরও একটি বিয়ের খবরকে উড়িয়ে দেওয়াও যাচ্ছিল না। এখন বোঝা যাচ্ছে, রাখির বিয়ের বিষয়টি বানানো। খবরের শিরোনাম হওয়ার জন্য রাখি এমনটি করেছেন।

নানাভাবে খবরে আসতে চাইতেন বলিউডের এই আইটেম গার্ল। কখনো বেফাঁস মন্তব্য করে, আবার কখনো অদ্ভুত সব ঘটনা ঘটিয়ে। এর আগে এক রেসলিং মঞ্চে নাচতে গিয়ে নারী বক্সারের আছাড় খান তিনি। এ জন্য হাসপাতালেও যেতে হয়েছিল তাঁকে।

বলিউড অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছিলেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। সে সময় তিনি তনুশ্রী দত্তকে মিথ্যাবাদী বলেছিলেন। এ জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন পরে।

শেয়ার করুন