মাধবপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্য

মাধবপুর প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার কমলপুর গ্রামে মালয়েশিয়া প্রবাসীর স্ত্রী লাকী আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে ওই গ্রামের ফরিদ মিয়ার স্ত্রী এবং একই গ্রামের ফয়েজ মিয়ার মেয়ে। তাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন হত্যা করেছে বলে দাকি করছেন নিহতের বাবা।

শুক্রবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ সন্ধ্যায় ঐ গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মাধবপুর থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, মৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে স্বামীর বাড়ির লোকজন জানান লাকী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু মরদেহটি তখন ঝুলন্ত ছিল না। তিনি আরো জানান, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে কিভাবে মৃত্যু হয়েছে তা জানা যাবে।

লাকীর বাবা ফয়েজ মিয়া জানান, একই গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে ফরিদ মিয়ার সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই স্বামীর পরিবারের লোকজন লাকীকে নানাভাবে হয়রানি করত। শুক্রবার সকালেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। ফয়েজ মিয়ার দাবি, স্বামীর বাড়ির লোকজন তার মেয়েকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চাইছে।

শেয়ার করুন