পুনঃভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেননি প্রথম হওয়া জাহিদ হাসান

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েছিলেন জাহিদ হাসান আকাশ। প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠার পর দ্বিতীয়বার আয়োজন করা হয় পরীক্ষার। তবে সোমবার (১৯ নভেম্বর) ‌এই পুনঃভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেননি ঐ শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, গত ১২ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ১২০ নম্বরের মধ্যে ১১৪ দশমিক ৩০ নম্বর নিয়ে সম্মিলিত মেধা তালিকায় বাণিজ্য শাখা থেকে প্রথম হয়েছিলেন জাহিদ হাসান। যার মধ্যে বাংলায় পেয়েছেন ৩০ নম্বরের মধ্যে ৩০; আর ইংরেজিতে পেয়েছেন ৩০ নম্বরের মধ্যে ২৭ দশমিক ৩০। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার গত ২০ বছরের রেকর্ড অতিক্রম করেছে।

‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্নফাঁসের বিষয় সামনে আসলে তখন এই শিক্ষার্থীরা ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় তিনি ফেল করেছিলেন ৩৪ দশমিক ৩২ নম্বর পেয়ে। যেখানে বাংলায় তিনি পেয়েছিলেন ৩০ নম্বরের মধ্যে ১০ দশমিক ৮; ইংরেজিতে ৩০ নম্বরের মধ্যে পেয়েছিলেন ২ দশমিক ৪০।

ফলাফলের এই অস্বাভাবিকতা লক্ষ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই শিক্ষার্থীকে নিয়ে তুমুল সমালোচনা করা হয়। পরে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে প্রমাণিত হওয়ার পর পরীক্ষা বাতিল করে নতুন করে পরীক্ষা গ্রহণের দাবি ওঠে। সেই আন্দোলনের প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ ‘ঘ’ ইউনিটে পুনঃভর্তি পরীক্ষা নেয়। আগের অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া বাকিরা পুনঃভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিলেও অনুপস্থিত থেকেছেন জাহিদ হাসান।

সোমবার প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ১৬ হাজার ১৮১ জনের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৯ হাজার ৮৮৬ জন। পাসের হার শতকরা ৬১ দশমিক ১০ শতাংশ।

সোমবার বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এদিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পরীক্ষার বিস্তারিত ফলাফল ও ভর্তি সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের admission.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইটে ‘ঘ’ ইউনিটের নোটিশ থেকে জানা যাবে। তাছাড়া, যে কোনো অপারেটরের মোবাইল ফোন থেকে DU GHA ˂roll no˃ টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে পাঠিয়ে ফলাফল পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (১৬ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত পুনঃভর্তি পরীক্ষায় ১৬ হাজার ১৮১ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নেয়।

শেয়ার করুন