নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠান

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর সামার ও ফল-২০১৮ সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে নবীন বরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর উপাচার্য প্রফেসর ড.আতফুল হাই শিবলীর সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য প্রফেসর হেনা সিদ্দিকী, ব্যবসা প্রশাসন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড.তোফায়েল আহমদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব পরিচালক সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া এবং পাবলিক হেলথ বিভাগের প্রধান ডাঃ রঞ্জিত কুমার দে।

পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। তেলাওয়াত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষার্থী মেহদী হাসান। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সেক্রেটারী প্রয়াত আরিফ ইকবাল স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরবর্তিতে সকল নবীন শিক্ষার্থীকে সিনিয়র শিক্ষার্থীরা ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়।

নবীন শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার শাহজাদা আল সাদিক, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ও সহকারী অধ্যাপক আল মেহদী সাদাত চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের প্রধান ও সহকারী অধ্যাপক মোঃ শামসুল কবির, প্রক্টর ও সহকারী অধ্যাপক রথিন্দ্র চন্দ্র গোপ, আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক আবুল হাসানাত ইবনে আবেদীন এবং এপ্ল্যাইড সোসিওলোজি এন্ড সোস্যাল ওয়ার্ক বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক মোঃ তানভীর আহমেদ চৌধুরী।

সকল বিভাগীয় প্রধানগণ নিজ নিজ বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দকে পরিচয় করিয়ে দেন। নবীন শিক্ষার্থীদের মধ্যে থেকে আরিয়ান তাজিম ও তাহমিদ বক্তব্য প্রদান করে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের যৌথ প্রচেষ্ঠায় এই বিশ্ববিদ্যালয় দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর ড.আতফুল হাই শিবলী সকল নবীন শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানান এবং তাদের উজ্জল ভবিষ্যত ও সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। অনুষ্ঠানে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ কালচারাল ক্লাব-এর শিল্পীরা প্রাণবন্ত সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ অনুষ্ঠানটি স্বতঃস্ফুর্তভাবে উপভোগ করেন।

শেয়ার করুন