ইন্টারের মাঠে জয় বঞ্চিত বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক:: বারবার সুযোগ নষ্ট করার পর ম্যাচের শেষ দিকে এগিয়ে গিয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু ইন্টার মিলান জিততে দিলো না তাদের। প্রথম তিন ম্যাচ জেতা বার্সেলোনা হোঁচট খেল সান সিরোতে। চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপের চতুর্থ ম্যাচে ইন্টারের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করল কাতালান জায়ান্টরা।

এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম ড্র করলেও ৪ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের শীর্ষে বার্সেলোনা। টটেনহ্যাম হটস্পার ২-১ গোলে পিএসভি আইন্দহোভেনকে হারিয়েছে। প্রথম জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে বার্সার গ্রুপে তিন নম্বরে স্পাররা। আর ৭ পয়েন্টে দ্বিতীয় ইন্টার।
গ্রুপের চতুর্থ ম্যাচের দলের সঙ্গে ইতালিতে গিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। ম্যাচ শুরুর ঘণ্টাখানেক আগে ফিটনেস না থাকায় তাকে দলে রাখেননি বার্সা কোচ। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে ছাড়াই দারুণ সম্ভাবনাময় শুরু করে কাতালান জায়ান্টরা। কিন্তু বাধ সাধেন ইন্টার গোলরক্ষক সামির হান্দানোভিচ। ২ মিনিটে উসমান দেম্বেলের বাঁ পায়ের শট রুখে দেন তিনি। ইভান রাকিতিচের বাড়িয়ে দেওয়া বলে ঠিক বক্সের সামনে থেকে শট নেন লুই সুয়ারেস। ১২ মিনিটের ওই চেষ্টা হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট।

২২ মিনিটে উরুগুয়ান ফরোয়ার্ডের আড়াআড়ি শট গোলপোস্টের পাশ দিয়ে চলে যায়। ৯ মিনিট পর দেম্বেলের কর্নার থেকে পিকের নিচু হেডে ব্যাকপোস্টে বল পান সুয়ারেস। আবারও লক্ষ্যভ্রষ্টের হতাশায় ডুবতে হয় তাকে।

হান্দানোভিচ বিরতির আগে দুইবার দারুণ সেভে বার্সাকে এগিয়ে যেতে দেননি। স্লোভেনিয়ান গোলরক্ষক ৩৭ মিনিটে ফিলিপ্পে কৌতিনিয়োকে রুখে দেন, তারপর ৪২ মিনিটে সুয়ারেসকে ব্যর্থ করেন।

বিরতির পর ৫২ মিনিটে ক্ষিপ্রতার সঙ্গে ঠেকিয়ে দেন হান্দানোভিচ। দুই মিনিট পর পিকের ওভারহেড কিক ক্রসবারের উপর দিয়ে চলে যায়। ৫৮ মিনিটে দেম্বেলের কর্নারকে অল্পের জন্য লক্ষ্যে পাঠাতে পারেননি লেঙ্গলেট। দেম্বেলের ৬৭ মিনিটের শক্তিশালী শট রুখে আবারও ইন্টারকে বাঁচান হান্দানোভিচ। দুই মিনিট পর ইন্টারের সুযোগ নষ্ট করে দেন পিকে ও সার্জি রবের্তো। ইভান পেরিসিচের চেষ্টা লক্ষ্যভ্রষ্ট করেন তারা সাফল্যের সঙ্গে।

৮১ মিনিটে দেম্বেলের বদলি হয়ে মাঠে নামার দুই মিনিট পর বার্সাকে এগিয়ে দেন মালকম। কৌতিনিয়োর বানিয়ে দেওয়া বলে বার্সার জার্সিতে প্রথম গোল করেন ব্রাজিলিয়ান। কিন্তু বেশিক্ষণ এগিয়ে থাকতে পারেনি কাতালান জায়ান্টরা। ৮৭ মিনিটে ভেসিনোর শট লেঙ্গলেট ব্লক করলেও ফিরতি শটে মাউরো ইকার্দি লক্ষ্যভেদ করেন মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেনের পায়ের নিচ দিয়ে।

চ্যাম্পিয়নস লিগে আলো ছড়াতে পারছেন না নেইমার-এমবাপেরাতের আরেক ম্যাচে এগিয়ে গেলেও ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে পিএসজিকে। নাপোলির সঙ্গে টানা দ্বিতীয় ম্যাচ পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হলো তাদের। এদিন নেপলসে ১-১ গোলে ড্র করেছে দুই দল।

প্রথমার্ধে পাওয়া একটি সুযোগই কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় পিএসজি। বাঁপ্রান্ত দিয়ে আক্রমণে যান কাইলিয়ান এমবাপে। সময় নিয়ে জায়গা খুঁজে বক্সের মধ্যে বল পাঠান ফরাসি তারকা। হুয়ান বার্নাত হোঁচট খাওয়ার আগেই ঠেলে জালে বল জড়ান।

বিরতির পর মুহুর্মূহু আক্রমণে গেছে নাপোলি। কিন্তু একের পর এক ‍দুর্দান্ত সেভে তাদের ব্যর্থ করেন দেন পিএসজি গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন। অভিজ্ঞ এ ইতালিয়ান গোলরক্ষক দারুণ ডাইভে রুখে দেন দ্রিয়েস মের্টেন্সকে। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১৩ মিনিটে চারবার লক্ষ্যে শট নিয়েও বুফনের কারণে সফল হতে পারেনি নাপোলি।

তবে ৬১ মিনিটে দুর্ভাগ্যজনকভাবে পেনাল্টি পায় স্বাগতিকরা। থিয়াগো সিলভা ও বুফনের সঙ্গে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয় ক্যালেয়নের। স্পট কিক থেকে নিচু ও জোরালো শটে পিএসজি গোলরক্ষকে পরাস্ত করেন ইনসিগনে।

এই ড্রয়ে ৪ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘সি’ গ্রুপের শীর্ষে উঠল নাপোলি। আগের ম্যাচে রেড স্টার বেলগ্রেডের কাছে হারা লিভারপুল তাদের সমান পয়েন্টে দুই নম্বরে। আর পিএসজি ৫ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতোই তৃতীয়। ৪ পয়েন্ট নিয়ে এখনও শেষ ষোলোর আশা বাঁচিয়ে রেখেছে বেলগ্রেড।

‘এ’ গ্রুপে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ নিজেদের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে। প্রথমার্ধে সাউলের গোলে এগিয়ে যায় তারা। ৮০ মিনিটে আন্তোয়ান গ্রিয়েজমানের গোলে জয়ের ব্যবধান বাড়ায় মাদ্রিদ ক্লাব। এই জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে তারা। তবে হেরেও শীর্ষে ডর্টমুন্ড। গোলব্যবধানে এগিয়ে থাকায় অ্যাতলেতিকোর সমান ৯ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে তারা।

লোকোমোটিভ মস্কোকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে পোর্তো ‘ডি’ গ্রুপের শীর্ষে। ৪ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট তাদের। শ্যালকে ২-০ গোলে গ্যালাতাসারেইর বিপক্ষে জিতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে।

শেয়ার করুন