H2O-এর মানে না বলে কিসের সংকেত বললে এই সমস্যা হতো না : অনন্যা

বিনোদন ডেস্ক:: এবারের ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় সেরা দশে ছিলেন সুমনা নাথ অনন্যা। রবিবার রাজধানীর বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির গ্র্যান্ড ফাইনালে অংশ নিয়ে সেরা তিনে জায়গা না পেলেও সবচেয়ে সুন্দর হাসির পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। আসরের ‘বেস্ট স্মাইলি অ্যাওয়ার্ড’ জয় করেন অনন্যা।

এর আগে পারফর্ম্যান্স রাউন্ডেও অনন্যা নজর কাড়েন উপস্থিত দর্শকদের। কিন্তু বুদ্ধিমত্ত্বার পরিচয় হেরে যান তিনি। শুধু হেরে যাওয়াই নয়। তার উত্তর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

সুন্দরী প্রতিযোগিতার আসরে বিচারক খালেদ হোসেন সুজন অনন্যাকে প্রশ্ন করেন ‘ H2O মানে কী?’ অনন্যা প্রশ্নের অর্থ ধরতে পারছিলেন না। টেলিভিশনের মাধ্যমে সারাদেশের দর্শকের চোখ, ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির রাজদর্শন হলের হাজার হাজার চোখ তখন বিস্ময় নিয়ে অনন্যাকে দেখছেন।

অনন্যা উত্তর দিতে পারছিলেন না। সুজন উত্তর বলে দিয়ে তার আসলে প্রশ্ন শুরু করেন। এরই মাঝে অনন্যা উত্তর দিয়ে বসেন H2O নামে রেস্টুরেন্ট আছে, ধানমন্ডিতে। রাজদর্শন হলে তখন মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

বিষয়টি নিয়ে সোমবার সোশ্যাল মিডিয়ায় কম জলঘোলা হয়নি। কিন্তু এই ঘোলাজল যেন আরেকটু ঘোলা করে দিলেন অনন্যা। জানা যায়, অনন্যাকে ধানমন্ডিতে সেই রেস্টুরেন্ট আমন্ত্রণ জানায়। তাদের আমন্ত্রণে সাড়া দেন এই প্রতিযোগী।

এ প্রসঙ্গে অনন্যা মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘আসলে প্রশ্নটা বুঝতে আমার সময় লেগেছে। আমি ভেবেছি স্যার হয়তো ফান করেছেন। তিনি যদি বলতেন H2O কিসের সংকেত তাহলে আমার ব্রেইন সেদিকে মুভ করতো। কিন্তু তিনি মানে জানতে চেয়েছেন, যেটার কারণে আমি বিভ্রান্ত হয়েছি।’

অনন্যা বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ হইচই হচ্ছে। আমি বলবো তাদের- একবার মঞ্চে উঠতে। মঞ্চে ওঠার অভিজ্ঞতা একেবারে ভিন্ন জিনিস। সেখানে নার্ভাসনেস তো কাজ করেই। তার মানে এই না যে আমি আমার ভুল স্বীকার করছি না। অবশ্যই আমারও ভুল হয়েছে। তবে বিচারক সুজন স্যার যদি আরেকটু স্বচ্ছ প্রশ্ন করতেন তাহলে আমার ব্রেইন সেদিকেই কাজ করতো।’

অনন্যা আরও বলেন, ‘আমার ব্যাকগ্রাউন্ড কমার্স। কিন্তু পানির সংকেত জানবো না তা তো নয়। কিন্তু সায়েন্স রিলেটেড প্রশ্ন হলে সেটা এক্স্যাক্ট করলে সুবিধা হয়। যদি আমাকে বলা হতো ওয়াটার মানে কী? তাহলে আমি উত্তর দিতে পারতাম। আর ওখানে খেয়াল করলে দেখবেন আমি প্রশ্নট সম্পূর্ণ বোঝার জন্য কয়েকবার জিজ্ঞেস করেছি অর্থাৎ সাউন্ডের প্রবলেম ছিল- যার কারণে বুঝতে সময় লেগেছে।’

সুমনা নাথ অনন্যা ইন্টারমিডিয়ায়েট দ্বিতীবর্ষের ছাত্রী। ঢাকা আইডিয়াল কলেজে বাণিজ্য নিয়ে পড়াশোনা করছেন। অনন্যার বাবা পুলিশে কর্মরত, মা গৃহিনী। থাকজেন রাজধানীর মধ্যবাড্ডা এলাকায়। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার আগেই তার ছোট পর্দায় অভিষেক হয়েছে। করেছেন বেশ ক’টি টিভি নাটক।-কালের কণ্ঠ

শেয়ার করুন