সিলেটে অনুমতির ‘ইশারা’ পেয়েও নাটকে ঐক্যফ্রন্ট: কাদের

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সিলেটে জনসভার অনুমতি পাওয়ার ইশারা পেয়েছেও নাটক করছে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।  তিনি বলেছেন, এর আগেও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেও সমাবেশের অনুমতি পেয়ে একই কাজ করেছিল তারা।

রোববার দুপুরে রাজধানীর শুক্রাবাদে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ডেফো‌ডিলে এক অনুষ্ঠা‌নে সাংবা‌দিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন‌টি বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

গত ১৩ অক্টোবর ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে আত্মপ্রকাশ করা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট প্রথম কর্মসূচি হিসেবে সিলেট সফরের ঘোষণা দিয়েছে। তবে ২৩ অক্টোবর সিলেটে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে না পাওয়ার কথা জানিয়ে কর্মসূচি একদিন পিছিয়েছে তারা। তবে ২৪ অক্টোবরের সমাবেশের অনুমতিও এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন ফ্রন্ট নেতারা। যদিও অনুমতি ছাড়াই সেখানে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব দলকে সমাবেশের অনুমতি দেয়ার নির্দেশ দিলেও পুলিশ কেন সিলেটে ঐক্যফ্রন্টকে সমাবেশের অনুমতি দিচ্ছে না- এমন প্রশ্ন ছিল ওবায়দুল কাদেরের কাছে। জবাবে তিনি বলেন, ‘অনুমতি নিয়ে নাটক করা তাদের পুরানো অভ্যাস। এর আগে তাঁরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঠিকই অনুমতি পেয়েছিল। কিন্তু এটা নিয়ে নাটক করতে দ্বিধা করেনি। অনুমতির ইশারা পুলিশ তাদের অলরেডি দিয়ে দিয়েছে।’

ঐক্যফ্রন্ট গঠনের আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর কামাল হোসেনের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। পরে তারা সমাবেশ করে গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে। ঐক্য প্রক্রিয়ার পক্ষ থেকে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি না দেয়ার কথা জানানো হয়। কিন্তু পরে জানা যায়, অনুমতি পেয়েও তারা সমাবেশ করেছে নাট্যমঞ্চে।

সিলেটে সমাবেশের অনুমতির ইশারা দেয়া হলেও সরাসরি কিছু জানানো হয়নি কেন- এমন প্রশ্নে কাদের বলেন, ‘এখানে বড় বড় নেতারা যাবেন, তাদের নিরাপত্তার বিষয় রয়েছে। পুলিশ একটু খতিয়ে দেখছেন । কিন্তু অনুমতির বিষয়ে তাঁরা কিন্তু ইঙ্গিতও পেয়েছেন। অফিসিয়াল চিঠি দেয়ার আগ পর্যন্ত অহেতুক তাঁরা নাটক করবে। এটা তাদের পুরানো অভ্যাস।’

‘আমার তো প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি বলেছেন সভা-সমাবেশ তারা যেখানেই করতে চায় তাদের কোন বাধা নিষেধ থাকবে না, থাকার কথাও না।’

তবে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে এখনও জানানো হচ্ছে, তারা সিলেটে জনসভার অনুমতি পাননি। ফ্রন্ট নেতা কামাল হোসেনের গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মণ্টু ঢাকাটাইমসকে বলেন, সিলেট এবং চট্টগ্রাম খোঁজ নিয়েছি, কোথাও আমাদেরকে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।’

নির্বাচন ক‌মিশনে বিভক্তির বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য নিয়েও প্রতিক্রিয়া জানান কাদের। বলেন, ‘ক‌মিশনের ভেতরে মতামতের বিষয়‌টি গোপনীয়। তারপরও তাদের মধ্যে মতবিরোধ থাকতে পারে। এটাই তো গণতন্ত্রের বিউটি। নির্বাচন ক‌মিশন বিভক্ত বিষয়‌টি একেবারেই হাস্যকর।’

শেয়ার করুন