সরকার হাওরবাসীর পাশে রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও বার্তায় বলেছেন, আমার সরকার সবসময় হাওরবাসীর পাশে আছে। হাওরে প্রজননকালীন সময়ে মাছধরা বন্ধ রাখার জন্য ভিজিএফ কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। প্রধানমন্ত্রী গতবছর হাওরে ফসলহানীর পর সরকার গৃহিত বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে হাওরবাসীর পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বৃহস্পতিবার টাংগুয়ার হাওর তীরবর্তী মোয়াজ্জমপুর উচ্চবিদ্যালয় মাঠে হাওরের জেলে ও কৃষক সম্মেলনের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক ভিডিও বার্তায় এসব কথা বলেন। সম্মেলনের প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, হাওরের উন্নয়নের প্রশ্নে সরকার খুবই আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রী হাওরের সব দাবি হাসিমুখে মেনে নেন। শত ব্যস্ততার মাঝেও এই সম্মেলনের কথা শুনার সাথে সাথে তিনি হাসিমুখে আপনাদের উদ্দেশ্যে তার ভিডিও বার্তা পাঠিয়ে দিয়েছেন। টাংগুয়ার হাওরের বিল ইজারা না দেওয়ার জন্য জেলেদের দাবীর প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, আমিও টাংগুয়ার হাওরের বিল ইজারা দেওয়ার বিপক্ষে।
আয়োজক সংগঠন পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পিযুষ পুরকায়স্থ টিটু’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ – সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ খান। এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য শামীমম আহমদ মুরাদ, এ এল আরডি’র উপ পরিচালক রওশন জাহান মনি, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, যুবলীগ সভাপতি হাফিজ উদ্দিন, হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অনুপম রায়, দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ সরকার, পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হুসেন, তাহিরপুর সমিতি সিলেটের উপদেষ্টা আব্দুল হাই মাস্টার। টাংগুয়ার হাওর মৎসজীবি সমিতির সভাপতি বজলুর রহমান, কৃষক রেজাউল আলম প্রমুখ।

শেয়ার করুন