যে ১৪ শর্তে সমাবেশের অনুমতি পেলো ঐক্যফ্রন্ট

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: ১৪টি শর্তে ড. কামালের নেতৃত্বাধীন নবগঠিত জোট ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’কে আগামী বুধবার (২৪ অক্টোবর) সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)। রোববার সন্ধ্যায় এসএমপি কমিশনার শর্তসাপেক্ষে সমাবেশের অনুমতি দেন। নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে সমাবেশ করতে চায় সরকার বিরোধী এ জোট।

সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র আবুল কাহের শামীম জানান, সন্ধ্যায় এসএমপি কার্যালয়ে তাদের কয়েকজন নেতাকে ডেকে নিয়ে সমাবেশের মৌখিক অনুমতি প্রদান করা হয়।  অনুমতি লাভের পর তারা নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে সমাবেশের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।  এর বাইরে  ঐক্যফ্রন্টের নেতারা হযরত শাহজালাল(র.), হযরত শাহপরান(র.) মাজার এবং মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক এম এ জি ওসমানীর কবর জিয়ারত করবেন।

এসএমপি’র বেঁধে দেওয়া ১৪টি শর্ত হচ্ছে-

১।  অনুষ্ঠানস্থলে পর্যাপ্ত সংখ্যক নারী ও পুরুষ স্বেচ্ছাসেবক রাখতে হবে।
২।  রাষ্ট্রবিরোধী কোনোধরণের বক্তব্য বা বিবৃতি দেওয়া যাবে না।
৩।  সামাজিক সম্প্রীতি নষ্ট করে কিংবা ধর্মীয় অনুভূতি বা মূল্যবোধের উপর আঘাত হানে এ ধরণের কোনো বক্তব্য বা বিবৃতি প্রদান বা কোনো ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করা যাবে না।
৪।  জনসাধারণের চলাচলের রাস্তায় কোনো প্রকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না।
৫।  নির্ধারিত স্থানে নির্ধারিত সময়ের (২টা থেকে ৫টা) মধ্যে কর্মসূচী শেষ করতে হবে।
৬।  আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটিয়ে জনগনের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি করার আশঙ্কা সৃষ্টি করে এমন বক্তব্য প্রদান করা যাবে না বা এরূপ কথা সম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করা যাবে না।
৭।  মাইক/শব্দযন্ত্র ব্যবহারের ফলৈ আশপাশের জনগনের যাতে কোনো অসুবিধা না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।
৮।  ব্যাগ, সিগারেট, দিয়াশলাই, লাইটার ইত্যাদি নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করা যাবে না।
৯।  কোনো ধরণের লাঠিসোঠা, ধারালো অস্ত্র বা লাঠিযুক্ত ব্যানার ফেস্টুন ইত্যাদি বহন করা যাবে না।
১০।  কোনো ধরণের বৈধ অস্ত্র সঙ্গে আনা/বহন করা যাবে না।
১১।  সুরমা পয়েন্ট হতে তালতলা পয়েন্ট পর্যন্ত রাস্তার উভয় পাশে কোনো গাড়ি পার্কিং করা যাবে না।
১২।  অনুষ্ঠানস্থলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে আয়োজনকারী কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবেন।
১৩।  উল্লেখিত শর্তাবলির যেকোনো একটি আ একাধিক লঙ্ঘন/অমান্য করা হলে সংশ্লিস্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
১৪।  কর্তৃপক্ষ কোনো কারণদর্শানো ব্যতিরেকে উক্ত অনুমতি আদেশ বাতিল করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করেন।

এর আগে রবিবার দুপুরে সমাবেশের অনুমতি পেতে হাইকোর্টে রিট করেন সিলেট জেলা বিএনপির সেক্রেটারী আলী আহমদ। সোমবার রিটের ওপর শুনানী হওয়ার কথা রয়েছে।

গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ হওয়া নতুন এ জোটে বিএনপি ছাড়াও রয়েছে জেএসডি, নাগরিক ঐক্য এবং গণফোরাম।

শেয়ার করুন