যুক্তরাষ্ট্রে ইহুদি উপাসনালয়ে বন্দুকধারীর হামলা: নিহত ১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: যুক্তরাষ্ট্রের পেনিসেলভেনিয়ায় এক ইহুদি উপাসনালয়ে বন্দুকধারীর হামলায় অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ছয়জন। প্রাথমিকভাবে হতাহতের কথা জানা না গেলেও পরে ১১ জনের কথা নিশ্চিত করেন কর্মকর্তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, স্কুইরেল হিলের ওই ইহুদি উপাসনালয় সিনাগগে সেসময় অনেক মানুষ ছিলো। পেনিসেলভেনিয়ার এই অঞ্চলেই ইহুদি বসবাস বেশি।

প্রাথমিকভাবে পুলিশ নিহতদের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত করে জানায়নি। হামলাকারীর আনুষ্ঠানিক পরিচয়ও এখনও জানানো হয়নি। তবে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে তার নাম রবার্ট বাওয়ার্স, বয়স ৪৬।

হামলাকারীকে পুলিশের হেফাজতে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। পিটসবার্গে জননিরাপত্তা বিষয়ক পরিচালক ওয়েন্ডেল হিসরিচ বলেন, ‘এটা খুবই ভয়াবহ দৃশ্য ছিলো। আমার দেখা জঘন্যতম একটি। আমি বিমান দুর্ঘটনা নিয়েও কাজ করেছি। কিন্তু এটার খুবই ভয়াবহ ছিলো।’

হিসরিচ বলেন, ঘটনাটি নিয়ে ‘বিদ্বেষমূলক অপরাধ’ হিসেবে তদন্ত করা হবে।

স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় জরুরি উদ্ধারকারী দল সেখানে পৌঁছায়। তৎক্ষণাত সেখানে সোয়াট ও অ্যাম্বুলেন্স অবস্থান নেয়।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, হামলাকারী শেতাঙ্গ ব্যক্তি ছিলেন। তার মুখে দাঁড়ি ছিলো। তার কাছে দুটি পিস্তল ও একটি রাইফেল ছিলো।

পেনিসেলভিনিয়া গভর্নর টম ওলফ এক বিবৃতিতে বলেন, এমন ঘটনাকে কোনোভাবে স্বাভাবিকভাবে নেওয়া যায় না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই ঘটনাকে ভয়াবহ উল্লেখ করে বলেন, ‘বারবার এমন ঘটনা দেখা লজ্জাজনক।’ তিনি হামলাকারীকে পাগল বলে উল্লেখ করেন।

তবে এই ঘটনার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র আইনের কোনও সম্পর্কে নেই বলে দাবি করেন তিনি।

শেয়ার করুন