জগন্নাথপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিঁড়িতে মৃত সন্তান প্রসবের ঘটনার তদন্তে কমিটি

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বারান্দার সিঁড়ির নিচে এক প্রসূতির মৃত সন্তান প্রসবের ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিকে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে সুনামগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জনের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার সুনামগঞ্জের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনী) ডা. শান্তা পালকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু) ডা. মুজিবুর রহমান ও সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. আবুল কালাম।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, জগন্নাথপুর পৌরসভার জগন্নাথপুর গ্রামের দরিদ্র শফিক মিয়ার স্ত্রী রুজিনা বেগমের প্রসবব্যথা শুরু হলে তাকে সোমবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এর কিছুক্ষণ পর নারী বিভাগে দায়িত্বরত নার্স আলেয়া বেগম ও জরুরি বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার ডা. সাজ্জাদ হোসেন প্রসূতিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে সিলেট ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

দুপুর ১২টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বের হওয়ার সময় সিঁড়িতে রুজিনা মৃত সন্তান প্রসব করেন। পরে আবার তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ উঠে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স ও চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।

শেয়ার করুন