‘হট্টমালার ওপারে’ মঞ্চায়নের মধ্য শেষ হলো সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নাট্যোৎসব

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের প্রতিষ্ঠার ৩৫ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে তিনদিন ব্যাপী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নাট্যোৎসব সোমবার সন্ধ্যায় দর্পণ থিয়েটার সিলেটের নাকট ‘হট্টমালার ওপারে’ মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। বাদল সরকারের রচনায় নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন এজাজ আলম ও পুন:নির্দেশনায় নাহিদ পারভেজ বাবু ও সুপ্রিয় দেব শান্ত। বিভিন্ন বয়সের নাট্যামোদী দর্শক উপভোগ করেন দর্পণ থিয়েটারের চমৎকার এই প্রযোজনাটি।

নাট্য প্রদর্শনী শেষে মঞ্চ থেকে ঘোষণা এলো অক্টোবর মাস থেকে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট প্রতি মাসে দু’টি প্রদর্শনীর মাধ্যমে নিয়মিত নাট্য প্রদর্শনী শুরু করবে। এছাড়াও অন্যান্য নাট্যোৎসব ও অনুষ্ঠান বিগত বছর ন্যায় অনুষ্ঠিত হবে। এবারের উৎসবে দর্শক সমাগমে ছিল চোখে পরার মত। ২০ সেপ্টেম্বর নাট্য পরিষদের প্রতিষ্ঠার ৩৫ বছর উদযাপন উপলক্ষে তিনদিন ব্যাপী নাট্যোৎসবের উদ্বোধন হয়। উৎসবের উদ্বোধন করেন মুক্তিযোদ্ধা ও নাট্যজন নিজামউদ্দিন লস্কর।

সোমবার সমাপনী দিন নাটক মঞ্চায়ন শেষে উৎসব স্মারক তুলে দেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রথম কার্য নির্বাহী কমিটির সভাপতি নাট্যজন অম্বরিশ দত্ত ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম মুকুল।

নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশু’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের সঞ্চালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন, কার্যনির্বাহী কমিটির কোষাধ্যক্ষ ইন্দ্রাণী সেন শম্পা, প্রচার ও দপ্তর সম্পাদক অচিন্ত কুমার দে, নির্বাহী সদস্য দিবাকর সরকার শেখর ও ফারজানা সুমি। নাট্য পরিষদের পক্ষ থেকে সিলেটের নাট্যামোদী দর্শক, সিলেট সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসন ও সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা হয়।

তিনদিন ব্যাপী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নাট্যোৎসব শেষে সম্মিলিত নাট্য পরিষদের নিয়মিত নাট্য প্রদর্শনীর ঘোষণায় উপস্থিত দর্শক করতালির মাধ্যমে স্বাগত জানান। সিলেটের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে তা আরও বেগবান হবে বলে সিলেটের নাট্যামোদী দর্শক আশা করেন।

শেয়ার করুন