সিলেট চেম্বারের সাথে ভোগ্যপণ্য পরিবেশক গ্রুপের মতবিনিময়

সিলেটের সকাল ডেস্ক:: দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেছেন জেলা ভোগ্যপণ্য পরিবেশক গ্রুপের নেতৃবৃন্দ।

বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে চেম্বার কনফারেন্স হলেেএ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় সিলেট চেম্বারের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাসুদ আহমদ চৌধুরী সভাপতিত্বে ভোগ্যপণ্য পরিবেশকগণ বলেন, ভোগ্যপণ্য ডিলারগণ কমিশনভিত্তিক ব্যবসা করে থাকেন। কোম্পানী নির্ধারিত মূল্যের বাইরে অতিরিক্ত মূল্য সংযোজন করার অধিকার পরিবেশকদের নেই। তাই মূল্য সংযোজন কর পরিবেশকদের কাছ থেকে আদায় করা কখনই যুক্তিসঙ্গত নয়। এতদিন পরিবেশকদের নিকট হতে প্যাকেজ ভ্যাট সিস্টেমের মাধ্যমে ভ্যাট আদায় করা হয়েছে। কিন্তু নতুন ভ্যাট আইন অনুযায়ী প্রাপ্ত কমিশনের উপর ১৫% ভ্যাট প্রদান করে ব্যবসা পরিচালনা করা পরিবেশকদের পক্ষে কোনভাবেই সম্ভব নয়।

তারা বলেন, পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পায় কিন্তু পরিবেশকদের কমিশন বৃদ্ধি করা হয় না অথচ ব্যবসা পরিচালনার খরচ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়াও উৎপাদনকারী বা আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক অনেক সময় ডিলার থাকা সত্বেও বিভিন্ন সুপার শপে সরাসরি মাল প্রেরণ, চুক্তির বিভিন্ন ধারার পরিবর্তন, ডিলার কর্তৃক বড়ধরণের বিনিয়োগের পর এলাকা ছোটকরণসহ বিভিন্ন সমস্যা পরিবেশকদের পোহাতে হয়। এসব বিষয় বিবেচনা করে ভোগ্যপণ্য পরিবেশকগণ তাদের উপর ১৫% ভ্যাট আরোপ না করে পূর্বের ন্যায় প্যাকেজ ভ্যাট চালু রাখার আহবান জানান এবং নিয়মিত ভ্যাট প্রদানকারী পরিবেশকদের অহেতুক হয়রানি না করে ভ্যাটের আওতা সম্প্রসারণের জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

এছাড়াও তারা পণ্য উৎপাদনকারী বা আমদানীকারক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের সাথে ভোগ্যপণ্য পরিবেশকদের সভা আয়োজনে সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সহযোগিতা কামনা করেন।

সভায় সিলেট চেম্বারের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাসুদ আহমদ চৌধুরী বলেন, দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি সর্বদাই ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় সচেষ্ট রয়েছে। ভোগ্যপণ্য পরিবেশকদের জন্য প্যাকেজ ভ্যাট চালু রাখার ব্যাপারে আমরা ইতোপূর্বেও সরকারের নিকট অনুরোধ জানিয়েছি। তিনি বিষয়টি নিয়ে ভ্যাট বিভাগের সাথে আলোচনা ও এব্যাপারে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বারের সহসভাপতি মোঃ এমদাদ হোসেন, পরিচালক ও ভ্যাট সাব কমিটির আহবায়ক মোঃ হিজকিল গুলজার, পরিচালক জিয়াউল হক, মুকির হোসেন চৌধুরী, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, সিলেট জেলা ভোগ্যপণ্য পরিবেশক গ্রুপের সভাপতি হাজী মোঃ বদরুল আলম মজনু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমিনুজ্জামান জোয়াহির, গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল ফজল, মোঃ রফিকুল ইসলাম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট চেম্বারের পরিচালক আব্দুর রহমান, হুমায়ুন আহমেদ, মুজিবুর রহমান মিন্টু, সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্সের সহ সভাপতি হুরায়রা ইফতার হোসেন, সিলেট চেম্বারের সাবেক পরিচালক ফজলুর রশীদ চৌধুরী মাহিন ও ভোগ্যপণ্য পরিবেশক গ্রুপের সদস্যবৃন্দ।

শেয়ার করুন