সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ: সন্ধ্যায় মুখোমুখি ভারত-শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস ডেস্ক:: দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলীয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই হিসেবে স্বীকৃত সাফ (সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন) চ্যাম্পিনশিপে আজ একটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বুধবার (০৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সাতবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতের মোকাবেলা করবে ১৯৯৫ আসরের চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কা।

অনূর্ধ্ব ২৩ দল নিয়ে আসা ভারতের আসল টার্গেট আগামী বছর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এশিয়ান কাপ। উন্নতির ধারাবাহিকতা ধরে রেখে তরুণদের কয়েকজনকে জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুত করাই ভারতীয় কোচের লক্ষ্য। অন্যদিকে বিশাল চ্যালেঞ্জের সামনে ফিফা র‌্যাংকিংয়ের ২০০ নাম্বারে থাকা শ্রীলঙ্কা।

ভারতের নেতৃত্ব দিবেন ২৩ বছর বষয়ী ডিফেন্ডার শুভাশিস বসু। সিনিয়র চার সদস্যের সঙ্গে ভারতীয় দলে আছেন এশিয়াডের বেশির ভাগ ফুটবলার। এদের নিয়ে শিরোপা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ভারতীয় কোচ স্টিফেন বলেন, পাইপ লাইনকে সমৃদ্ধ করতে তরুণদের নিয়ে আমি সাফে এসেছি। এটা ওদের প্রমাণের বড় মঞ্চ।

এদিকে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে গত ২৭শে আগস্ট ঢাকা এসে পৌঁছায় শ্রীলঙ্কা। এর দু’দিন পরই নীলফামারীতে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচে অংশ নেয় দলটি। ধারে ভারে পিছিয়ে থাকা শ্রীলঙ্কা ম্যাচটি জিতে নেয় ১-০ গোলে। সাফের আগে এই জয়কে টনিক হিসেবে দেখছেন দলটির কোচ পাকির আলী।

তিনি বলেন, শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে হারানো আমাদের জন্য বড় অনুপ্রেরণা। আমাদের দলটা ভালো। ভালো প্রস্তুতি নিয়ে এখানে এসেছি। এই প্রস্তুতি ম্যাচের আগে আমরা লিথুনিয়াকে হারিয়েছিলাম। জাপানে ও দক্ষিণ কোরিয়ায় আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। আশা করি এসব কারণেই এখানেও ভালো করবো।

গ্রুপের প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ ভারত নিয়ে পাকির আলী বলেন, ভারত বরাবর সাউথ এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী দল। সাতবারের চ্যাম্পিয়ন। এবার শুনেছি তরুণ একটি দল পাঠিয়েছে ভারত। তবে একটা কথা মনে রাখতে হবে যারা আসুক তারা কিন্তু ভারতীয় জার্সি গায়ে দিয়ে মাঠে নামবে।

পরিসংখ্যান বলছে, ১৫ বারের দেখায় আট বারই জিতেছে ভারত। শ্রীলঙ্কার জয় মাত্র তিনটিতে। চারটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। লঙ্কানদের তিনটি জয়ই এসেছে ২০০০ সালের আগে। নিশ্চিত ফেবারিটের তকমা নিয়েই মাঠে নামছে টিম ইন্ডিয়া।

এবারের সাত জাতির আসরে সাফ কাপে ভারত গ্রুপ ‘বি’-তে। গ্রুপে রয়েছে, শ্রীলঙ্কা ও মলদ্বীপ। অন্য দিকে গ্রুপ ‘এ’-তে আয়োজক দেশ বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে, নেপাল, পাকিস্তান ও ভুটান।

শেয়ার করুন