‘নারীকে পেছনে রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়’

সিলেট চেম্বারে রপ্তানী বাণিজ্যে নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা বিষয়ক কর্মশালা

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মোঃ হামিদুর রহমান খান বলেছেন, ‘জনসংখ্যার শতকরা ৫০ ভাগ নারীকে পেছনে রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। মধ্যম আয়ের দেশের মর্যাদা টিকিয়ে রাখতে হলে রপ্তানী বৃদ্ধি ছাড়া বিকল্প কিছু নেই। আর এক্ষেত্রে মহিলা উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, মহিলা উদ্যোক্তারা যাতে সহজে আমদানী-রপ্তানী বাণিজ্যে বিরাজমান বাঁধাগুলো অতিক্রম করতে পারেন সেজন্য ‘ন্যাশনাল সিঙ্গেল উইন্ডো’ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারের ৩৯টি সংস্থা ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িত। একজন মহিলা উদ্যোক্তা যাতে সবগুলোতে যেতে না হয় সেজন্যেই ন্যাশনাল সিঙ্গেল উইন্ডো চালু করা হচ্ছে।

রোববার সিলেট চেম্বারের কনফারেন্স হলে রপ্তানী বাণিজ্যে নারী উদ্যোক্তাদের সহায়তা এবং বাংলাদেশ ট্রেড পোর্টালের উন্নয়ন বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সিলেট চেম্বারের সভাপতি জনাব খন্দকার সিপার আহমদ এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ রিজিওনাল কানেক্টিভিটি প্রকল্প-১ এর পরিচালক ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মোঃ হেমায়েত উদ্দিন, প্রজেক্ট ম্যানেজার ড. মোঃ মাহমুদুর রহমান ও ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের কনসালটেন্ট ফুয়াদ এম খালিদ হোসেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ রিজিওনাল কানেক্টিভিটি প্রজেক্ট-১ এবং দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিভাগীয় এই কর্মশালায় বক্তারা বলেছেন, আমদানী-রপ্তানী বাণিজ্যে নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টি এবং ব্যবসা সম্প্রসারণে নারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হলে আমলাতান্ত্রিক বাঁধাগুলো প্রথমে দূর করতে হবে। তাহলে আমদানী-রপ্তানী বাণিজ্যে নারীদের অংশগ্রহণ ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে।

বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বারের পরিচালক মোঃ হিজকিল গুলজার, সুনামগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক জি. এম. তাসহিজ, সিলেট উইমেন চেম্বারের সভাপতি স্বর্ণলতা রায়। সভাপতির বক্তব্যে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ বলেন, সিলেট আইসিটি এবং পর্যটনের জন্য সবচেয়ে সম্ভাবনাময় স্থান। এই সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্টকরণ ও উদ্যোক্তা সৃষ্টি করতে হলে রেল ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করতে হবে। সম্প্রতি সিলেট চেম্বারের দাবীর প্রেক্ষিতে সিলেট-ঢাকা-সিলেট রুটে সান্ধ্যকালীন ফ্লাইট চালুর ফলে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থায় পিছিয়ে থাকার কারণে আমরা পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে পারছিনা। তিনি জানান, চেম্বারে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সেল রয়েছে। ব্যাংক সহ অন্যান্য সংস্থা এগিয়ে আসলে নারী উদ্যোক্তারাও তাদের ব্যবসা প্রসারিত করতে পারবেন।

কর্মশালায় সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী ও নারী উদ্যোক্তাগণ অংশ নেন। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সিলেট চেম্বারের সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুদ আহমদ চৌধুরী, সহ সভাপতি মোঃ এমদাদ হোসেন, উদ্যোক্তা জয়নুল আক্তার চৌধুরী, বাংলাদেশ এগ্রো প্রসেরস এসোসিয়েশননের ডেপুটি সেক্রেটারী শাহনাজ বেগম পান্না, নারী উদ্যোক্তা রাশিদা আক্তার ও সাইদুল হাসান। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট চেম্বারের পরিচালক পিন্টু চক্রবর্তী, চন্দন সাহা, আলহাজ্ব মোঃ আতিক হোসেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রিজিওনাল কানেক্টিভিটি প্রকল্প-১ এর কর্মকর্তাবৃন্দ।

শেয়ার করুন