এমসি কলেজ উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগে সেমিনার অনুষ্ঠিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেট এমসি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ বলেছেন বিজ্ঞানে শ্রেষ্টত্ব অর্জন করতে গিয়ে স্রষ্টাকে ভুলে গেলে চলবে না । কারন স্রষ্টা আগে বিজ্ঞান পরে । তিনি আরো বলেন প্রফেসর আজিজুর রহমান লস্করের ‘পূর্ণাঙ্গ বৈজ্ঞানিক জ্ঞান’ বিষয় প্রবন্ধে এ বিষয়টি সুন্দর করে উপস্থাপন করা হয়েছে। আশা করা যায় তার প্রকাশিত্ব বইয়ে আরো বিশদ আলোচনা থাকবে । এরকম প্রবন্ধ মানুষকে বিজ্ঞান মনস্ক করতে উৎসাহিত করবে ।

তিনি বুধবার সিলেট এমসি কলেজ উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগ আয়োজিত বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর আজিজুর রহমান লস্করের ‘পূর্ণাঙ্গ বৈজ্ঞানিক জ্ঞান’ বিষয় সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরুক্ত কথাগুলো বলেন ।

এমসি কলেজ উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর নেছাওর মিয়ার সভাপতিত্বে সহকারি অধ্যাপক শাহনাজ বেগমের সঞালনায় অনুষ্টানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর আজিজুর রহমান লস্কর। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর সালেহ আহমদ, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী ।

মূখ্য আলোচক প্রফেসর আজিজুর রহমান লস্কর বলেন, ‘বিজ্ঞান হচ্ছে বিশেষ জ্ঞান, নির্ভুল জ্ঞানঅ। আধুনিক বিজ্ঞান বস্তুজগতে সীমাবদ্ব। মাহান ¯্রষ্টার ,তার ঐশিক ক্ষমতা এবং অলৌকিক বিষয়ের সাথে আধুনিক বিজ্ঞানের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই ।কিন্তু বাস্তবে বস্তুজগতের বাহিরে মহাবিশ্বে দেহাতীত,অতীন্দ্রিয় ও অলৌকক জগত রয়েছে। তাই পূর্ণাঙ্গ বৈজ্ঞানিক জ্ঞান অর্জনের লক্ষ্যে বস্তুজগতের জ্ঞান এবং ঐশিক ও অতীন্দ্রিয় জগতের জ্ঞানের সমন্বয় অপরিহার্য।’

আরো বক্তব্য রাখেন- সিলেট এমসি কলেজ ইংরেজী বিভাগের প্রধান প্রফেসর শফিউল আলম, দর্শন বিভাগের প্রধান প্রফেসর আহমদ আতিকুর রহমান,ইতিহাস বিভাগের প্রধান প্রফেসর নুরে ফারহানা বেগম, রসায়ন বিভাগের প্রধান প্রফেসর ইসলাম উদ্দিন, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রধান প্রফেসর মাহমুদুল হাসান, প্রানিবিদ্যা বিভাগের প্রধান গনেশ চন্দ্র রায় চৌধুরী, নলেজ হারবাল স্কুল এ্যান্ড কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক কবি নাজমুল আনসারী প্রমুখ।

শেয়ার করুন