সু চির পদত্যাগ করা উচিত: জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান

মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের সঙ্গে অং সান সু চি-রয়টার্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর চালানো হত্যাযজ্ঞের জন্য মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি’র পদত্যাগ করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের বিদায়ী প্রধান রাদ আল হুসেইন। খবর বিসিসির

রাদ আল হুসেইন বলেন, সু চি মিয়ানমারে এমন এক পদে ছিলেন যেখান থেকে তিনি কিছু করতে পারতেন। তিনি নিরব থাকলেও কাজ হতো। সবচেয়ে ভালো হতো সু চি যদি পদত্যাগ করতেন।

সু চি’কে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র হওয়ারও প্রয়োজন ছিল না বলে মন্তব্য করেন রাদ আল হুসেইন।

গত সোমবার জাতিসংঘ গঠিত স্বাধীন আন্তর্জাতিক ফ্যাক্ট ফাইন্ডিংয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, মিয়ানমার সেনাবাহিনী গণহত্যার অভিপ্রায় থেকেই রাখাইনে রোহিঙ্গাদের নির্বিচার হত্যা ও ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটিয়েছে। এ জন্য দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল মিন অং হদ্মায়িংসহ বাহিনীর পাঁচ জেনারেলকে দোষী সাব্যস্ত করে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি করার আহ্বান জানানো হয়।

তবে মিয়ানমার এই প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে। তাদের দাবি, তারা জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিশনকে প্রবেশ করতে দেয়নি। তাই তাদের কোনো প্রতিবেদনও তারা মানবে না।

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনকারী সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে নিরব থাকায় সমালোচিত সু চি’র নোবেল পুরস্কার কেড়ে নেওয়ার দাবি উঠলেও তা কেড়ে নেওয়া হবে না বলে বুধবার নোবেল কমিটি জানিয়েছে। সু চি তার অতীত কর্মকাণ্ডের জন্য এই পুরস্কার পেয়েছেন তাই তার নোবেল কেড়ে নেওয়া হবে না বলে জানায় নোবেল কমিটি।

গত বছরের ২৫ আগস্ট রাখাইনে ৩০টি পুলিশ ও সেনা চৌকিতে হামলার পর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানের নামে নির্বিচার হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, লুণ্ঠন শুরু করে মিয়ানমার সেনা ও আধা সামরিক বাহিনী। এর শিকার হয়ে ১০ লাখেরও বেশি বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশের উপকূলে আশ্রয় নেয়। তাদের ফেরত নিতে এর পর গত জানুয়ারিতে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমার চুক্তি করলেও নানা টালবাহানায় এখনও প্রত্যাবাসন শুরু করেনি।

শেয়ার করুন