শাহজালাল (রহ.)এর ওরসে ভক্ত আশেকানদের ভীড়

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:: সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.) এর দুই দিনব্যাপী ৬৯৯তম বার্ষিক ওরস আজ বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে। শুক্রবার ভোর রাত ৩টা ১৫ মিনিটে আখেরী মোনাজাতের পর শিরণী বিতরণের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পন্ন হবে ওরস। প্রতি বছর আরবী মাসের ১৯ ও ২০ জিলক্বদ দু’দিন ব্যাপী হযরত শাহজালাল (রহ.)এর মাজারে এই ওরস অনুষ্ঠিত হয়।

ওরস উপলক্ষে শাহজালাল (রহ.) এর মাজার নতুন করে সাজানো হয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সকাল থেকে ভক্ত আশেকানরা ভীড় করছেন মাজার শরীফে। মাজারসহ আশপাশের এলাকা এখন লোকে লোকারণ্য।

রেওয়াজ অনুযায়ী আজ সকাল ৯টা থেকে মাজারে গিলাফ চড়ানো শুরু হয়েছে। ভক্তরা মিছিল সহকারে মাজারে গিলাফ নিয়ে আসছেন। বিকেল পর্যন্ত গিলাফ চড়ানো চলবে।

যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে মাজারের ভেতরে ও বাইরে থাকছে পর্যাপ্ত ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা।

এদিকে, সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে- সেদিকে লক্ষ্য রেখে সিলেট মহানগর পুলিশ ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে। মাঠ পর্যায়ে পুলিশের পাশাপাশি মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও তৎপর থাকবেন। এমনকি, মাজারকেন্দ্রিক পুলিশি তৎপরতা নজরদারি করবেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এছাড়া, ওরস চলাকালীন আম্বরখানা থেকে চৌহাট্টা, দর্শন দেউড়ি হতে ঝর্ণারপাড়, রাজার গলি হতে মাজারের প্রধান গেইট, মিরের ময়দানস্থ হোটেল হেরিটেজ হতে ঝর্ণারপাড় রাস্তা এবং মাদ্রাসা সড়কস্থ পূবালী ব্যাংক গেইট হতে মিনার গেইট পর্যন্ত রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। এছাড়া, মাজার ও তার আশপাশ এলাকায় কোনো যানবাহন পার্কিং না করার জন্য এসএমপির প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইসলাম প্রচারের জন্য হযরত শাহজালাল (রহ.) ১৩০৩ খ্রিস্টাব্দে ৩৬০ সফরসঙ্গী নিয়ে সিলেট আসেন। ১৩৪৬ খ্রিস্টাব্দের ১৯ জিলক্বদ তিনি ইন্তেকাল করেন। সিলেটে তিনি যে টিলায় বসবাস করতেন, সেখানেই তাকে দাফন করা হয়। তার কবরকে ঘিরেই পরে গড়ে উঠেছে মাজার।

 

শেয়ার করুন