হবিগঞ্জে বছরে মাছের উৎপাদন ৪৬ হাজার মেট্রিক টন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জ জেলায় প্রতি বছর ৪৬ হাজার ৩৫৪ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয় বলে জানিয়েছে জেলা মৎস্য অফিস। বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন ও মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়- হবিগঞ্জ জেলায় মাছের চাহিদা রয়েছে ৩৪ হাজার ৩৭২ মেট্রিক টন। বাকী ১১ হাজার ৯৮২ মেট্রিক টন উৎপাদিত মাছ উদ্বৃত্ত থাকে। যা দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়- জেলায় নদ নদী ও খাল বিল এবং দীঘি পুকুরসহ মৎস্য আহরণের স্থান রয়েছে ২১ হাজার ৬১১টি। যেগুলোর সর্বমোট আয়াতন ৭৩ হাজার ৮২১ হেক্টর। এ থেকে সারা বছরে জেলায় উৎপাদন হয়ে ৪৬ হাজার ৩৫৪ মেট্রিক টন মাছ। এছাড়াও সরকারি-বেসরকারি হ্যাচারী এবং ব্যক্তি মালিকানাধীন মৎস্য চাষ প্রকল্প রয়েছে প্রায় আড়াইশ’। এছাড়াও পেশাজীবী মৎস্য চাষী রয়েছেন ৪৯ হাজার ২১৩ জন। যারা মৎস্য আহরণের মাধ্যমে নিজ জেলার চাহিদা মিটিয়ে মাছ রপ্তানি করেন বিভিন্ন স্থানে।

এ সময় বক্তারা বলেন, সরকার দেশের মৎস্য সম্পদের আরো সম্প্রসারণের লক্ষে সারা দেশে ‘স্বয়ং সম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সপ্তাহ ব্যাপি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। সারাদেশের ন্যায় হবিগঞ্জেও ১৯ জুলাই ২য় দিন ব্যানার, ফেস্টুন ও বর্ণাঢ্য র‌্যালির মাধ্যমে উদ্বোধন হবে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে ৭ দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছেন ২০ জুলাই ৩য় দিন মৎস্য সেক্টরের বতৃমান সরকারের অগ্রগতি বিষয়ে আলোচনা সভা ও প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন, ২১ জুলাই ৪র্থ দিন ফরমালিন বিরোধী অভিযান ও মৎস্য বিষয়ক আইন বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, ২২ জুলাই ৫ম দিন বিভিন্ন স্কুল-কলেজ মৎস্য চাষ বিষয়ক আলোচনা, বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও প্রমাণ্য চিত্র প্রদর্শন, ৬ষ্ঠ দিন হাট বাজার, জনবহুল স্থানে মৎস্য বাষ বিষয়ক উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও ভিডিও এবং প্রমাণ্য চিত্র প্রদর্শন এবং সর্বশেষ সপ্তম মদিন ২৪ জুলাই মূল্যায়ন, পুরস্কার বিতরণ এবং সমাপনী অনুষ্ঠান। এতে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকবেন।

জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে ও ও ক্ষেত্র সহকারী নারায়ন দাসের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ শাহজাদা খসরু। বক্তৃতা করেন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এডভোকেট রুহুল হাসান শরীফ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শাহ ফখরুজ্জামান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন শায়েস্তাগঞ্জ মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারের ব্যবস্থাপক মোঃ নাছির উদ্দিন। তথ্য উপস্থাপন করেন নবীগঞ্জের কুর্শি হ্যাচারী ম্যানেজার মোহাম্মদ আলম। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মৎস্য আড়তদার, চাষীরা এতে অংশ নেন।

শেয়ার করুন