নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যায় নিখোঁজ ৪ জনের লাশ উদ্ধার

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে ট্রলার থেকে পড়ে নিখোঁজদের মধ্যে চার যাত্রীর লাশ উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর থেকে সকাল ১০টার মধ্যে সেন্ট্রাল খেয়াঘাট নদীতে এক এক করে চারটি লাশ ভেসে উঠে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মো. আরিফুল হক জানান, মোট পাঁচজন নিখোঁজ দাবি করে সংশ্লিষ্টদের পরিবার। নিখোঁজ যাত্রীদের মধ্যে রনি, দ্বীন ইসলাম, ইমন ও অজ্ঞাত একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

রোববার রাত ৯টায় নারায়ণগঞ্জ সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে শীতলক্ষ্যা নদীতে ট্রলারের ছাদ ভেঙে যাত্রীরা নদীতে পড়ে কয়েকজন নিখোঁজ হন। এ ঘটনার খবর পাওয়ার পর রাতেই শহরের মণ্ডলপাড়া ফায়ার সার্ভিস ও বন্দর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নিখোঁজদের সন্ধানে তল্লাশি অভিযান চালান।

নিখোঁজ দ্বীন ইসলাম বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ ইউনিয়নের নমুনাবাজার এলাকার কালা চাঁন মিয়ার ছেলে। তিনি শহরের একটি হোসিয়ারি কারখানায় কাজ করতেন বলে তার পরিবারের স্বজনরা জানিয়েছেন।

দ্বীন ইসলামের ছোট বোনের স্বামী রাসেল জানান, রোববার রাতে হোসিয়ারি কারখানা থেকে কাজ শেষ করে বাড়িতে ফেরার জন্য সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে ওই ট্রলারে উঠেছিলেন। তার এক বন্ধু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে এরপর থেকে দ্বীন ইসলামের কোনো সন্ধান পাওয়া না যাওয়ায় তিনি নদীতে ডুবে নিখোঁজ হয়েছেন বলে পরিবারের স্বজনরা ধারণা করেন।

ইমন ও রনির বাড়ি বন্দর মদনগঞ্জ এলাকায়। নিহতদের স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

শেয়ার করুন