দখল নয়, নিজের বাসায় উঠেছেন বাগবাড়ির রোকেয়া বেগম

সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: জবর দখল নয়, নিজের স্বামীর ত্যাজ্য ভিত্তিতে প্রাপ্ত ভূমির মালিক হিসেবে নিজের বাসায় উঠেছেন বলে দাবি করেছেন নগরীর বাগবাড়ির বাসিন্দা রোকেয়া খাতুন। তিনি রোববার (০৮ জুলাই) সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি করেন। তিনি আরো অভিযোগ করেন, ননদের স্বামী আমিন তাদের বাসা বাড়ি দখল করে আত্মসাতের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

নগরীর বাগবাড়ি সিটি আবাসিক এলাকার ৬ নং বাসার বাসিন্দা রোকেয়া খাতুন লিখিত বক্তব্যে দাবি করেন, তার স্বামী এ কে এম মঈন উদ্দিন লটারির মাধ্যমে সিটি আবাসিক এলাকায় একটি প্লট পান। যার দলিল সম্পাদন করেন তার বাবার নামে। ২০০৫ সালে এই ভূমিতে একটি দ’ুতলা বাসা নির্মাণ শুরু করেন তার স্বামী মঈন উদ্দিন। বাসার কাজ সম্পন্ন হয় ২০১০ সালে। এ বাসা নির্মাণে করতে গিয়ে তার (রোকেয়া) ১৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। শুরু থেকে বাসার ভাড়াসহ সকল কিছু মঈন উদ্দিন গ্রহণ করছিলেন। তিনি জানান, তার স্বামী বছর খানেক আগে মারা যান। এর আগে শ্বশুর-শাশুড়িও মৃত্যুবরণ করেন।

রোকেয়া খাতুনের অভিযোগ, তার স্বামী মঈন উদ্দিন মারা যাওয়ার পর থেকে আমিন ওই বাসা দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে। সে নানাভাবে তাকে ও তার সন্তানদের মেরে ফেলার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, গত ৩০ জুন সন্তানকে নিয়ে বসবাসের জন্য ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে তিনি বাসা গ্রহণ করেন। এ সময় কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড হয় নাই। রোকেয়া খাতুন বলেন, নিজের বাসায় উঠব কোন প্রকার জোর জবরদস্তি করার প্রশ্নই উঠে না। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় স্থানীয় একটি পত্রিকা আমাকে জড়িয়ে অসত্য সংবাদ পরিবেশন করেছে।

তিনি আরো অভিযোগ করেন, স্বামী মঈন উদ্দিন মারা যাওয়ার পর ননদের স্বামী আমিন সুযোগ পেয়ে বাসা দখলে নেয়ার জন্য ফন্দি আটছে। হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। রোকেয়া বলেন, শ্বশুড়ের সম্পত্তিতে আমার স্বামীর হক রয়েছে। আমি আমার বাসায় উঠেছি, এই ভূমিতে যারা বৈধ হকদার আছে তাদের সেই হক নিতে আমার কোন আপত্তি নেই। কিন্তু আমাকে বের করে দিয়ে কেউ বাসা দখলে নিয়ে নেবে সেটা কোনভাবে মেনে নেয়া যায়না। রোকেয়া নিজের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন