তীব্র গরমে অস্বস্তিতে জনজীবন

মাজেদ আহমদ :: তীব্র গরমে অস্তিরতা বিরাজ করেছে জনজীবনে। গতকাল বৃহস্পতিবারের মতো আজও সকাল থেকে রোদের প্রখরতা খুব বেশি। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রার পারদ ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিনমজুর, রিকশা চালক থেকে শুরু করে সকল শেণিপেশার মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এই গরমে।

তীব্র তাবদাহে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকে। শিশুরা গরমের শিকার হচ্ছে বেশি। অনেকে তীব্র গরমের হাত থেকে বাঁচতে বারবার পানি খেয়েছেন, কেউবা গোসল করেছেন কয়েকবার।

এদিকে গরমে একটু স্বস্তি পেতে রাস্তার পাশের শরবতের দোকানে ভিড় করছেন অনেকে। অনেক রিকশা চালক ছায়াযুক্ত স্থানে বসে বিশ্রাম করছেন।

সকাল ১০টায় নগরীর বারুতখানা পয়েন্টের পাশে রিকশায় বসে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন রিকশাচালক আনোয়ার আলী। তিনি বলেন, ‘গতকাল গরমের যন্ত্রনায় রিকশা চালাতে জান বের হয়ে গেছিল। রাতে ভালভাবে ঘামাতে পারিনি। আজও গরমে জান বের হয়ে যাচ্ছে।’

জিন্দাবাজারের হোটেল শ্রমিক শেবুলের সারা শরীর ছিল ঘামে ভেজা। যেন সদ্য গোসল করে এসেছে। হোটেলের বাবুর্চি শোয়েবের অবস্থা আরো খারাপ। শোয়েব জানায়, এতো গরম আগে কখনো দেখিনি। সারাক্ষণ শরীর থেকে ঘাম বের হচ্ছে। একটু পর পর ফ্যানের নিচে গিয়েও শান্তি পাই না।

এদিকে এই গরম থেকে বাঁচতে অনেকে বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন ছাতা নিয়ে।

শেয়ার করুন