রাত পোহালে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল

স্পোর্টস ডেস্ক :: রাত পোহালেই বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়াতে জমবে বিশ্বকাপ ফুটবলের জমকালো আসর।

৩২ টি দেশ নিয়ে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় পর্দা উঠবে বিশ্বকাপের ২১তম আসরের। এর পরই রাত ৯টায় মাঠে গড়াবে ফুটবল।

প্রায় ৮০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন লুঝনিকি স্টেডিয়াম রাশিয়া বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি হবে। এটিই বিশ্বকাপে এটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভেন্যু। বছরখানেক আগে শেষ হয়েছে এ স্টেডিয়ামের সংস্কারকাজ। প্রায় ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো ব্যয়ে সংস্কার হওয়া এ স্টেডিয়াম এখন ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ বিশ্বকাপ ফুটবলের জন্য পুরোপুরি তৈরি।

এ স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী ম্যাচ ছাড়াও একটি সেমিফাইনাল ও ফাইনালসহ মোট ৭টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। আর এটা তো সবাই জানেন যে স্বাগতিক রাশিয়ার বিরুদ্ধে এশিয়ার প্রতিনিধি সৌদি আরবের লড়াই দিয়েই শুরু হচ্ছে এবারের বিশ্বকাপ।

বিশ্বকাপের মতো বর্নাঢ্য একটি বড় ইভেন্ট প্রথমবারের মতো আয়োজন হচ্ছে রাশিয়ায়। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নেও তা হয়নি কখনো। আট বছর আগে ২০১০ সালের ডিসেম্বরে সিদ্ধান্ত হয়, প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ হবে রাশিয়ায়। তা অবশ্য বিতর্কের ঊর্ধ্বে নয়। আগ্রহী বাকি দেশগুলোর মধ্যে ছিল ইংল্যান্ডও, যারা বাদ পড়ে যায় ভোটাভুটির প্রথম পর্বে। দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন তো অভিযোগ তোলেন, দুর্নীতির মাধ্যমে স্বাগতিক হওয়ার অধিকার আদায় করেছে রাশিয়া। সাবেক ফিফা প্রেসিডেন্ট সেপ ব্লাটার পর্যন্ত পরবর্তী সময়ে স্বীকার করেছেন, ভোটের আগেই নির্ধারিত হয়ে যায়, ২০১৮ বিশ্বকাপ ফুটবল হবে রাশিয়ায়।

আগের বিশ্বকাপ আসরগুলোর মতোই এবারও রোমাঞ্জের কমতি নেই। উত্তেজনা-উন্মাদনা-হৈহল্লার কমতি নেই। কিন্তু সব কিছুর পরও ওই চাপা সংশয়। রাশিয়া কি পারবে ঠিকঠাক বিশ্বকাপ আয়োজন করতে? বাকি বিশ্ব যেন ভয়ে ভয়ে তাকিয়ে আছে মেঘ দেখার আশঙ্কায়। তাদের পূর্ণিমার চাঁদ দেখিয়ে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ রাশিয়ার। এবং অতি অবশ্যই ভ্লাদিমির পুতিনের।

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ভ্যানু লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ১৯৮০ সালের মস্কো অলিম্পিকের উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। এরপর ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছিল ৬২ বছর আগে নির্মিত এ স্টেডিয়ামটি। দেশটির প্রথম প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির লেনিনের নামেই প্রথম নামকরণ করা হয়েছিল এ স্টেডিয়ামের। ১৯৯২ সালের পর স্টেডিয়ামের নাম হয় ‘লুঝনিকি’। মস্কোভো নদীর বাঁকে জন্মানো সুগভীর তৃণক্ষেত্র থেকে ‘লুঝনিকি’ নামটির উৎপত্তি।

রাশিয়া- সৌদির আরবের প্রথম ম্যাচ মাঠে গড়ানোর আগে৩০ মিনিটের সংক্ষিপ্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নিজেদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে গোটা বিশ্বের সামনে মেলে ধরবে রাশিয়া। উদ্বোধনী মঞ্চে বিশ্বখ্যাত দুই শিল্পী রবি উইলিয়ামস ও আইদা গারিয়ুফুলিনার সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন ব্রাজিলীয় ফুটবল গ্রেট রোনালদোও। যারা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ম্যাচের টিকিট পাননি, তাদের জন্যও স্টেডিয়ামের বাইরে লাগানো হয়েছে বড় পর্দা। এ ছাড়া মস্কোর সব ফ্যান জোনেই বড় পর্দায় বিশ্বকাপ উপভোগের সুযোগ থাকছে।

শেয়ার করুন