‘বদরের যুদ্ধ ছিলো হক আর বাতিলের মধ্যকার যুদ্ধ’

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেটের দরগাহ হযরত শাহজালাল (র.) মাদরাসার মুহতামিম এবং দরগাহ মসজিদের খতিব আল্লামা মুফতি আবুল কালাম যাকারিয়া বলেছেন, ‘১৭ রমজান ইসলামের ইতিহাসে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন। এই দিন হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর জীবদ্দশায় সবচেয়ে বড় যুদ্ধ সংগঠিত হয়। এ যুদ্ধ ছিলো হক আর বাতিলের যুদ্ধ, এটা ছিলো আলো এবং অন্ধকারের মধ্যকার যুদ্ধ। সে যুদ্ধে মুসলমানেরা মাত্র ৩১৩জন নিয়ে বিশাল শত্রু বাহিনীর মোকাবেলায় বিজয়ী হয়েছিলেন। এটা ছিলো ইসলামের ইতিহাসে প্রথম বিজয়।’

তিনি বলেন, ‘পবিত্র রমজান মাসে নাজিল হয় আল কোরআন। আল কোরআনের আরেক নাম ফোরকান, যা হক আর বাতিলের মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টি করেছে। রমজানের গুরুত্বপূর্ণ আমল সিয়াম অর্থাৎ রোজা রাখা। কিছু জিনিষ হালাল হওয়া সত্ত্বেও রমজানে দিনের বেলা মুসলমান সে কাজ থেকে বিরত থাকে। রোজা মানে শুধু এই মাসে খারাপ কর্ম থেকে বিরত থাকা নয়, সারা বছর যেন খারাপ কাজগুলো থেকে বিরত থাকতে পারে সেই চেষ্টা করতে হবে।’

১৭ রমজান রোববার সিলেট নগরীর বালুচরস্থ জামিআ সিদ্দিকিয়ায় ইসলামের প্রথম বিজয় দিবস ‘ইয়াওমে বদর’-এর উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া ও ইফতারপূর্ব আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জামিআ সিদ্দিকিয়ার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সৈয়দ মবনুর সভাপতিত্বে ও উপ-পরিচালক মাওলানা রেজাউল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জামিআর পরিচালক মুফতি মনসুর আহমদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. জসিম উদ্দিন, মুফতি ফয়জুল হক জালালাবাদী, নাট্যলোকে উপদেষ্টা বাবুল আহমদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তিলাওয়াত করেন জামিআর ছাত্র শাহজালাল হোসাইন এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন দোয়া মাহফিল উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক হাফিজ মাওলানা জামিল আহমদ চৌধুরী।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক নোমান বিন আরমান, সাংবাদিক ইকবাল হাসান জাহিদ, প্রগতিশীল পাঠক সংঘ শৈলীর সভাপতি ফিদা হাসান, জামিআ সিদ্দিকিয়ার উপ-পরিচালক (প্রশাসন) হেলাল হামাম, ইকবাল আহমদ, বাদল আহমদ প্রমূখ ।

শেয়ার করুন