পাকিস্থান থেকে ডাকযোগে মাদক পাচার: বিয়ানীবাজারের ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: ডাকযোগে পাকিস্থানের লাহোর থেকে হেরোইন পাচারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় বিয়ানীবাজারের দুই জনকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। একই সাথে তাদের দুজনকে ১ লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে এ আদেশ প্রদান করেন সিলেট মহানগর দায়রা জজ মফিজুর রহমান ভূঁইয়া। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সিলেটের বিয়ানীবাজারের হোসেন আহমদ মানিক ও পারভেজ আলম সুমন। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে হোসেন আহমদ পলাতক রয়েছেন। পারভেজ সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে আটক আছেন।

আদালতের পিপি মফুর আলী জানান, ২০১৪ সালের ৯ মার্চ পাকিস্তানের লাহোর থেকে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার বৈদেশিক ডাক বিভাগের ঠিকানায় চার জনের নামে একটি পার্সেল আসে।

পরে তা ডাক বিভাগের সুপারভাইজার খুললে তাতে ৮ কেজি ৪৫ গ্রাম হেরোইন দেখতে পান। পরে পার্সেলে উল্লেখিত নাম ঠিকানা যাচাইবাছাই করে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহারের প্রমাণ পাওয়া যায়।

তিনি জানান, ঠিকানার সঙ্গে লেখা মোবাইল ফোন নম্বরের সূত্র ধরে পুলিশ হোসেন আহমদ মানিক ও পারভেজ আলম সুমনকে সনাক্ত করে। পরে জানা যায় তারা পাকিস্তান থেকে হেরোইন এনে যুক্তরাজ্যে পাচার করতেন।

এ ঘটনায় ২০১৪ সালের ১৩ মার্চ বৈদেশিক ডাক বিভাগের শুল্ক ইউনিটের সহযোগী রাজস্ব কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য আইনের ১৯ (১) ধারায় দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি নিয়মিত মামলা রজু করেন।

পরে পুলিশ পরিদর্শক জমশেদ আলম ২০১৫ সালের ২ নভেম্বর এই দুই জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। দীর্ঘ প্রক্রিয়া শেষে আদালত আজ এ রায় ঘোষণা করেন।

শেয়ার করুন